পশ্চিমবঙ্গ বিধানসভা নির্বাচনে আব্বাস সিদ্দিকির নেতৃত্বেই লড়বে মিম: ওয়াইসি

80
Social Share

ডেস্ক রিপোর্ট: রবিবার আব্বাস সিদ্দিকির সঙ্গে বৈঠকের পর মিম প্রধান আসাউদ্দিন ওয়াইসি জানিয়েছেন, আসন্ন পশ্চিমবঙ্গ বিধানসভা নির্বাচনে ফুরফুরা শরিফের পীরজাদা আব্বাস সিদ্দিকির (Abbas Siddiqui) নেতৃত্বেই ভোটে লড়বে অল ইন্ডিয়া মজলিস-ই ইত্তেহাদুল মুসলিমিন (এআইএমআইএম সংক্ষেপে মিম)। মিম সুপ্রিমোর এই ঘোষণায় রাজ্য রাজনীতি তোলপাড়। রাজনৈতিক মহলের মতে, আব্বাস সিদ্দিকি এবং ওয়াইসির দল একযোগে নির্বাচনে লড়াই করলে তৃণমূলের একচেটিয়া সংখ্যালঘু ভোটব্যাঙ্কে থাবা পড়বে। উল্লেখ্য, বাংলার মোট জনসংখ্যার প্রায় ৩০ শতাংশ মুসলিম।

আব্বাস সিদ্দিকির সঙ্গে বৈঠকের পর আসাদউদ্দিন ওয়াইসি বলেন, বাংলায় আব্বাস সিদ্দিকির নেতৃত্বেই বিধানসভা ভোটে করব আমরা। আমরা ওর পাশে থাকব আমরা। উনার নেওয়া যেকোনো সিদ্ধান্তই সমর্থন করব। এবিষয়ে বিস্তারিত পরবর্তীতে জানাবেন আব্বাস সিদ্দিকিই। এদিন সকালে ফুরফুরা শরিফে যান ওয়াইসি। প্রায় ২ ঘন্টা বৈঠক করেন ওয়াইসি- সিদ্দিকি।

সিদ্দিকি-মিম জোট অত্যন্ত জরুরি বলে দাবি করেছেন ওয়াইসি। তাঁর মতে, সিদ্দিকি সাহেব যা করছেন তা ঐতিহাসিক। তাই উনি যে সিদ্ধান্ত নেবেন, আমি সেটাই মেনে নেব। বলে রাখি, আব্বাস সিদ্দিকি আগেই ঘোষণা করেছিলেন, তিনি আলাদা দল গড়ে একুশের বিধানসভা ভোট লড়বেন। সংখ্যালধুদের উন্নয়নের জন্যেই তাঁর দল কাজ করবে বলে দাবি করেন সিদ্দিকি। বিধানসভা ভোটকে টার্গেট করে ইতিমধ্যেই সভা সমাবেশ করছেন ফুরফুরা শরিফের পীরজাদা।

এদিকে, আসন্ন ভোটে বাংলায় প্রার্থী দেওয়ার কথা বিহারের বিধানসভা ভোটের পরপরই জানিয়ে রেখেছেন ওয়াইসি। এই প্রেক্ষাপটে ভোটের আগে দুই সংখ্যালঘু সংগঠন এক সাথে লড়াইয়ের সিদ্ধান্ত যথেষ্ট তাৎপর্যপূর্ণ বলেই মনে করছে রাজনৈতিক মহল। প্রসঙ্গত, বাংলায় সংখ্যালঘু ভোট এখন তৃণমূলের দখলে। আব্বাস সিদ্দিকি এবং মিম জোট বাধলে শাসক শিবিরের সেই ভোট ব্যাংকে থাবা পড়তে পারে বলেই আশঙ্কা করা হচ্ছে।