Let us forgive & forget.  Forgive করলেও Forget হতেন না,শেখ মোহাম্মদ আবদুল্লাহ।

Social Share
খোন্দকার খালেদ আজিজ  শিপুর ফেসবুক থেকে
গ্রামের বাড়ি পাশাপাশি ইউনিয়নে।গ্রামও দুতিন গ্রাম পরে।একেবারে তৃণমূল থেকে বাংলাদেশ আওয়ামী লীগের ধর্ম সম্পাদক হয়েছিলেন,দুঃসময়ের ২০০২ সালের কাউন্সিলে।এবার ২০১৯ সালে আওয়ামী লীগ সরকারের ধর্ম প্রতিমন্ত্রী হয়ে,গতকাল রাতে চলে গেলেন,না ফেরার দেশে।
স্বাধীনতার আগে খুলনা আজম খান কমার্স কলেজের ভিপি ছিলেন।স্বাধীনতার পরে মনিভাইয়ের(শেখ মনি)নজরে পড়ে,যুবলীগ, তারপর আওয়ামী লীগ। গোপালগঞ্জ জেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক।
আমার সাথে পরিচয় ১৯৮৬ সালে।কলেজে আমার ছাত্র রাজনীতি করতে গিয়ে।সম্মোধন গ্রাম সম্পর্কে করতে গিয়ে উনি বাস্তব একটা গল্প বলে,নানা সম্মোধনে ডাকার অধিকার দিয়েছিলেন। নাতি ডেকে, তিনিও আমাকে বেধেছিলেন।
স্বৈরাচারী এরশাদ আর খুনি খালেদার বিরুদ্ধে আন্দোলনে তিনি ছিলেন প্রান। কতো স্মৃতি।৮৭র আন্দোলন। ৮৮তে বন্যাতে আমদের কলেজে স্বৈরাচার এরশাদের জনসভায়,তার সামনে আওয়ামী লীগের প্রতিবাদ মিছিল,জুতা প্রদর্শন। ৯০ এর গনঅভ্যুত্থান।
দীর্ঘ ৭/৮ বছর পরে কলেজ ছাত্র সংসদ নির্বাচন। বিজয়। এই বিজয়ের পরে,আজকের প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা টুঙ্গিপাড়া এলেন।আমি,আমরা আবদুল্লাহ নানাকে,নেত্রী ঢাকা ফেরার পথে বঙ্গবন্ধু কলেজে আনার জেদ ধরলাম।প্রথম রাজি না হলেও,পরে প্রতিশ্রুতি দিলেন,নেত্রীকে বলবেন।নেত্রীকে আনলেন ব্যবস্থা করলেন।আর সেই আমি, নেত্রীর সামনে বক্তৃতা করলাম প্রথম। বয়স আর উত্তেজনায়,নেত্রী ছাড়া আমি একাই বক্তা,তারপরই বক্তব্য দিতে শেখ হাসিনাকে আমার আমন্ত্রণ। কলেজের করিডোরে, মাইক ছাড়া।
পরে আব্দুল্লাহ নানা রস করে বলেছিলেন,গুরুমারা নাতি।
৯৩ সালে কলেজ নির্বাচনে নমিনেশন নিয়ে মতপার্থক্যে, গুলি বোমা দিয়ে কি বিতিকিচ্ছিরি গন্ডগোলটাই করলাম আপনার বাসার ভিতরে,আপনার সাথেই।নেত্রী এসে মিটিয়েছিলেন  সেই অচলাবস্থা। সেলিম ভাইতো(শেখ ফজলুল করিম সেলিম এমপি,প্রেসিডিয়াম সদস্য) ছিলেনই।
আমি ঢাকাবাসী হওয়ার পরে,ঢাকা গোপালগঞ্জে  যতবার দেখা হয়েছে যোগাযোগ রাখতে বলতেন।প্রতিমন্ত্রী হওয়ার পরে,মন্ত্রণালয়ে যেতে বলতেন।
ছবিটা উনি প্রতিমন্ত্রী হওয়ার পরে,২০১৯ সালে গোপালগঞ্জ বাসি দের এক পিকনিকের।শেষ দেখা এবার ১৭ মার্চ টুঙ্গিপাড়ায় বঙ্গবন্ধুর মাজারে।
প্রিয় আবদুল্লাহ নানা,আপনি রাজনীতির গ্রুপিং মারামারি গন্ডগোলের সালিশ, কথার মারপ্যাচে,গল্প আর হাসির উদাহরণ দিয়ে, Let us forgive & forget এই উক্তি দিয়ে মিটাতেন।
Forgive আপনি করেছিলেন।Forget আমি করতে পারবোনা। থাকুন চিরশান্তিতে।