স্বামীকে বেঁধে স্ত্রীকে ধর্ষণের অভিযোগ

স্ত্রীকে ধর্ষণে

রংপুরের বদরগঞ্জে খাবারের সঙ্গে ওষুধ মিশিয়ে পরিবারের সদস্যদের অচেতন করে ও স্বামীর হাত-পা-মুখ বেঁধে রেখে এক গৃহবধূকে ধর্ষণের অভিযোগ পাওয়া গেছে। এ ঘটনায় করা মামলায় পুলিশ মিলন হোসেন ও মোস্তাকিন নামের দুই যুবককে গ্রেপ্তার করেছে। আসামিরা সবাই ওই গৃহবধূর স্বামীর বন্ধু।

ভুক্তভোগী পরিবার, পুলিশ ও মামলা সূত্রে জানা যায়, গত শুক্রবার গৃহবধূর তিন বন্ধু বেড়াতে আসেন তাঁদের বাড়িতে।

সারা দিন এলাকায় ঘোরাঘুরি করেন তাঁরা। তাঁদের জন্য রাতের খাবার তৈরি করা হয়। ওই তিন যুবক কৌশলে গৃহবধূ, তাঁর স্বামী ও শ্বশুর-শাশুড়ির খাবারে চেতনানাশক ওষুধ মিশিয়ে দেন। খাওয়ার পরে পরিবারের সবাই ঘুমিয়ে পড়েন। রাত ১টা-দেড়টার দিকে ওই তিন যুবক গৃহবধূর কক্ষে ঢোকেন এবং তাঁর স্বামীর হাত-পা রশি দিয়ে বাঁধেন ও মুখে টেপ লাগিয়ে দেন। এরপর তাঁর অচেতন স্ত্রীকে ধর্ষণ করেন। এক পর্যায়ে জ্ঞান ফিরে এলে ওই গৃহবধূ চিৎকার শুরু করেন। এতে প্রতিবেশীরা ছুটে এলে যুবকরা পালিয়ে যান।

পরদিন শনিবার সকালে ওই গৃহবধূ, তাঁর স্বামী ও শ্বশুর-শাশুড়িকে উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করা হয়। গৃহবধূকে দিনাজপুর মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে নিয়ে যাওয়া হয়। এ ঘটনায় ওই গৃহবধূর স্বামী বাদী হয়ে তিন বন্ধুর বিরুদ্ধে বদরগঞ্জ থানায় ধর্ষণ মামলা করেন।