সাংবাদিকদের জন্য বিপজ্জনক পাকিস্তান, তালিকায় পঞ্চম

161

 

যে কোনও সময় হতে পারেন খুন। যদি বা প্রাণে বাঁচেন, ভাতে মারা হয় তাঁদের। নয়তো কণ্ঠরোধ করা হয়। এই অবস্থা পাকিস্তানে। ইন্টারন্যাশনাল ফেডেরেশন অফ জার্নালিস্টস (‌আইএফজে)‌ একটি তালিকা প্রকাশ করে জানিয়েছে, কোন কোন দেশে সাংবাদিকদের দারুণ বিপদ রয়েছে। সেই তালিকায় পঞ্চম স্থানে রয়েছে পাকিস্তান।
এই তালিকা প্রকাশের পরেই সরব পাকিস্তানের সংবাদ মাধ্যম। ওয়ার্ল্ড প্রেস ফ্রিডম ডেতে পাকিস্তান ফেডেরাল ইউনিয়ন অফ জার্নালিস্টস (PFUJ) প্রধানমন্ত্রী শাহবাজ শরিফের কাছে আর্জি জানান। বলেন, এবার সেদেশে সাংবাদিকদের রক্ষা করা হোক। সংগঠনের প্রেসিডেন্ট শাহজাদা জুলফিকার জানিয়েছে, ‘‌উন্নত এবং স্বাস্থ্যকর সমাজের অন্যতম নির্দেশক হল সংবাদ মাধ্যমের স্বাধীনতা। এর সঙ্গে আপোস করা যায় না।’‌

১৯৯০ থেকে ২০২০ সাল পর্যন্ত পাকিস্তানে প্রাণ হারিয়েছেন ১৩৮ জন সাংবাদিক। পরিসংখ্যান বলছে, এর মধ্যে ন’‌টি মামলায় সাংবাদিককে ভয় দেখানো হয়েছে। তার পর গুম করে দেওয়া হয়েছে। হদিশ মেলেনি অপহৃতদের। পাক সংবাদ মাধ্যম ডন–এ বলা হয়েছে, ইমরান খানের সরকারের আমলে সাংবাদিকদের দুরবস্থা বেড়েছে। তাঁরা ইমরানের দল পিটিআই কর্মীদের হাতে হেনস্থার শিকার হয়েছেন। মারধর খেয়েছেন। এমনকী মহিলা সাংবাদিকরাও রেহাই পাননি। ইমরানের মন্ত্রীরাও সোশাল মিডিয়ায় ট্রোল করেছেন সাংবাদিকদের।
যেসব সংবাদ মাধ্যম সরকারের চাপের কাছে নতিস্বীকার করেনি, সেগুলোর অর্থের জোগান বন্ধ করা হয়েছে। ফলে সেগুলোয় তালা পড়েছে। বহু সাংবাদিক এবং তাঁর পরিবার পথে বসেছেন। নতুন সরকারের উচিত, সাংবাদিকদের জন্য দেশে ইতিবাচক পরিস্থিতি তৈরি করা।
-আজকাল