জনগণ স্বতঃস্ফূর্তভাবে নির্বাচন বর্জন করেছে : রিজভী

দ্বাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচন জনগণ স্বতঃস্ফূর্তভাবে বর্জন করেছে বলে মন্তব্য করেছেন বিএনপির সিনিয়র যুগ্ম মহাসচিব রুহুল কবির রিজভী। নির্বাচনের পর পূর্ব ঘোষিত দুইদিনের ‘গনসংযোগ’ কর্মসূচির প্রথম দিনের কর্মসূচির অংশ হিসেবে মঙ্গলবার (৯ জানুয়ারি) সকালে রাজধানীর কমলাপুর রেলওয়ে স্টেশনের সামনে ও আশেপাশে সচেতনতামূলক লিফলেট বিতরণকালে এমন কথা বলেন তিনি।

রিজভি বলেন, আমরা-আর মামুরা মিলে নির্বাচন করেছে আওয়ামী লীগ। একটি দলের নির্বাচন হয়েছে। নির্বাচনের দিন সকাল দশটার মধ্যেই ইসি সচিব বলেন, কারা এমপি হবেন তা ঠিক করা আছে। তবুও এই নির্বাচনে তারা নিজেরা মারামারি ও সহিংসতা ঘটিয়েছে। একজন আরেকজনকে হত্যা করেছে। এভাবে মানুষের ভোটাধিকার নিয়ে ছিনিমিনি খেলছে সরকার। বিএনপি ও সমমনা দলগুলোর ডাকে নির্বাচন বর্জন করায় দেশবাসী ও সাধারণ মানুষকে ধন্যবাদ ও কৃতজ্ঞতা জানান রিজভী।

নির্বাচন বর্জনের জন্য পথচারী, রিকশাচালক ও সাধারণ মানুষের হাতে লিফলেট তুলে দিয়ে বিএনপির ভারপ্রাপ্ত চেয়ারম্যানের পক্ষ থেকে তাদের ধন্যবাদ জানান রিজভী।

মঙ্গলবার (৯ জানুয়ারি) প্রথম দিনে গণসংযোগ ও লিফলেট বিতরণকালে আরও উপস্থিত ছিলেন কেন্দ্রীয় বিএনপির স্বাস্থ্য সম্পাদক ডা. মো. রফিকুল ইসলাম, তাঁতী দলের আহ্বায়ক আবুল কালাম আজাদ, মৎস্যজীবী দলের কেন্দ্রীয় সদস্য সচিব মো. আব্দুর রহিম, যুবদলের কেন্দ্রীয় সহ সাংগঠনিক সম্পাদক কামরুজ্জামান জুয়েলসহ অনেকে।

এর আগে সোমবার (৮ জানুয়ারি) বিএনপির স্থায়ী কমিটির সদস্য ও সাবেক মন্ত্রী ড. আবদুল মঈন খান এক সংবাদ সম্মেলনে বলেন, ‘বিএনপি শান্তিপূর্ণ ও নিয়মতান্ত্রিক রাজনীতিতে বিশ্বাসী। এরই ধারাবাহিকতায় পরবর্তী কর্মসূচির সিদ্ধান্ত না হওয়া পর্যন্ত আগামীকাল (মঙ্গলবার) ও পরদিন (বুধবার) গণসংযোগ কর্মসূচি অব্যাহত রাখা হবে। এ সময় রাজপথে, হাটে, মাঠে, ঘাটে মানুষের কাছে যাব, কথা বলব, তাদের কাছে প্রচারপত্র বিতরণ করা হবে।’

উল্লেখ্য, গত ৭ জানুয়ারি অনুষ্ঠিত দ্বাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনকে ডামি ও প্রহসন আখ্যা দিয়ে অবিলম্বে তা বাতিলের দাবি জানিয়েছে বিএনপি সহ বিভিন্ন দল। এই দাবিতে আজ এবং আগামীকাল দুইদিন গণসংযোগ কর্মসূচি ঘোষণা করা হয়েছে।

এস/ভি নিউজ

পূর্বের খবরশেখ হাসিনাকে অভিনন্দন জানালেন মালদ্বীপের রাষ্ট্রপতি
পরবর্তি খবরঢাকা চলচ্চিত্র উৎসব শুরু জয়ার ‘ফেরেশতে’ দিয়ে