রাষ্ট্রহীন হচ্ছেন ১৯ লাখেরও বেশি মানুষ!

আসামের নাগরিকদের চূড়ান্ত তালিকা (ন্যাশনাল রেজিস্টার অব সিটিজেনস) বা এনআরসি প্রকাশ হয়েছে। আজ শনিবার স্থানীয় সময় সকাল ১০টায় (বাংলাদেশ সময় সকাল সাড়ে ১০টা) এ তালিকা প্রকাশিত হয়েছে। এ তালিকা থেকে বাদ পড়েছেন ১৯ লাখ ৬ হাজার ৬৫৭ জন।

সর্বশেষ পাওয়া তথ্যে জানা গেছে, ১৯ লাখ ৬ হাজার ৬৫৭ জন তালিকার বাইরে রয়েছেন। ফলে তাঁদের ভবিষ্য়ত অনিশ্চিত হয়ে পড়ল।

জানা গেছে, তালিকায় রয়েছে ৩কোটি মানুষের নাম, যারা বৈধ নাগরিক বলে চিহ্নিত হয়েছেন।

বিবিসি জানিয়েছে, ভারতের জাতীয় নাগরিকপঞ্জির চূড়ান্ত তালিকায় ৪১ লাখেরও বেশি মানুষ নাগরিকত্ব হারানোর ঝুঁকিতে রয়েছেন। তবে এদের মধ্যে কতজনের নাম আবার স্থান পাচ্ছে তাও দেখার বিষয়।

এদিকে, আসামের সবকটি স্পর্শকাতর জেলাগুলিতে অতিসতর্কতা জারি করা হয়েছে। বিশেষ করে বাংলাদেশ সীমান্ত লাগোয়া কাছাড়, হাইলাকান্দি ও করিমগঞ্জে সতর্কতা জারি হয়েছে।

প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদির সরকারের দ্বিতীয় মেয়াদে ক্ষমতা আরোহনের পরে এটা অন্যতম বড় পদক্ষেপ। সম্প্রতি তিনি জম্মু ও কাশ্মীরের বিশেষ মর্যাদা বাতিল করে ব্যাপক চাপের মধ্যে রয়েছেন।

এদিকে, আসামের এনআরসি তালিকা প্রকাশকে কেন্দ্র করে নিরাপত্তা জোরদার করা হয়েছে।

সংবাদমাধ্যম এনডিটিভি-কে ভারতীয় স্বরাষ্ট্রমন্ত্রণালয় জানিয়েছে, সকাল ১০ থেকেই এনআরসি তালিকা অনলাইনে পাওয়া যাবে।

কেন্দ্রীয় সরকার জানিয়েছে, যাদের নাম চুড়ান্ত তালিকায় থাকবে না তাদেরকে সকল আইনি প্রক্রিয়া সম্পন্ন করার আগ পর্যন্ত বিদেশী হিসেবে ঘোষণা করা যাবে না। এ তালিকা থেকে বাদ পড়া ব্যক্তিরা ফরেনার্স ট্রাইব্যুনালে আপিল করতে পারবেন। আর এই আপিল করতে হবে ৬০ থেকে ১২০ দিনের মধ্যে।

ভারতের স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয় জানিয়েছে, ওই মামলা নিস্পত্তির জন্য ১০০০ টি ট্রাইব্যুনাল গঠন করা হবে। এর মধ্য ১০০ ট্রাইব্যুনাল খোলা হয়েছে এবং ২ শতাধিক ট্রাইব্যুনাল সেপ্টেম্বরের প্রথম সপ্তাহে গঠিত হবে।

সূত্র : এনডিটিভি, টাইমস অব ইন্ডিয়া, ডেইলি হান্ট