কাশ্মীরকে সামনে রেখে ভোটের প্রচার শুরু বিজেপির

ভোটমুখী দিল্লি, হরিয়ানা, মহারাষ্ট্র ও ঝাড়খন্ডে নির্বাচন পরিচালনার জন্য যথাক্রমে কেন্দ্রীয় মন্ত্রী প্রকাশ জাভড়েকর, কেন্দ্রীয় মন্ত্রী নরেন্দ্র সিংহ তোমর, ভূপেন্দ্র যাদব এবং ওম মাথুরকে দায়িত্ব দিয়েছেন বিজেপি সভাপতি অমিত শাহ। জম্মু-কাশ্মীরের ৩৭০ অনুচ্ছেদ বিলোপের পর বিজেপির সদস্য সংগ্রহ অভিযানের মেয়াদও আরো বাড়ানো হয়েছে। ‘অখণ্ড’ ভারতের স্লোগান তুলে বিজেপির সদস্য হওয়ার আবেদন জানানো হচ্ছে।

এদিকে সংসদে যে দিন অমিত শাহ জম্মু-কাশ্মীরের প্রস্তাব নিয়ে আসেন, সে দিনই প্রাক্তন স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী পি চিদম্বরম বলেছিলেন, সরকারের এই পদক্ষেপের সঙ্গে জম্মু-কাশ্মীরের যতটা না সম্পর্ক, তার থেকেও বেশি নজর বাকি রাজ্যের ভোটের দিকে। কংগ্রেস নেতাদের মতে, কাশ্মীর নিয়ে উগ্র জাতীয়তাবাদের তাস খেলে যেমন বেহাল অর্থনীতি থেকে নজর ঘোরাতে চাইছে সরকার, তেমনই বাকি রাজ্যে, বিশেষ করে গোবলয়ে ভোট পাওয়া তাদের লক্ষ্য।

তবে বিজেপি নেতারা পাল্টা কটাক্ষ করেছেন। তারা বলেন, কংগ্রেস আগে তো ৩৭০ অনুচ্ছেদ নিয়ে নিজেদের সামলাক, নিজেদের সভাপতি নিয়োগ করুক। একদল ৩৭০ অনুচ্ছেদের পক্ষে বলছেন, আর ওয়ার্কিং কমিটি উল্টো পথে হাঁটছে। তাদের মতে, কংগ্রেস নিজেদের ঘর সামলে ওঠার আগে মোদির দল শক্তি আরো বাড়াবে।