ঈদুল আজহা : ঘরমুখো মানুষের স্রোত

 

ভিনিউজ ডেস্ক –

প্রিয়জনের সঙ্গে ঈদুল আজহা উদযাপন করতে রাজধানী ঢাকা ছাড়ছে মানুষ। ফলে রাজধানীর বাস টার্মিনাল, লঞ্চঘাট ও রেলস্টেশনে বাড়ি ফেরা মানুষের পদচারণায় তিল ধারণের ঠাঁয় নেই। শুক্রবার ভোর থেকে কমলাপুর রেলস্টেশনে ঘরমুখো মানুষের স্রোত নেমেছে।

শুক্রবার সাপ্তাহিক ছুটির দিন হওয়ায় বাড়ি ফেরা মানুষের ভিড় বেশি। এদিকে, ঈদযাত্রার তৃতীয় দিনে এসে ট্রেন ছাড়ছে দেরিতে। ফলে ভোগান্তিতে পড়েছে মানুষ।

সরেজমিন দেখা গেছে, শুক্রবার সকাল থেকেই নারী-পুরুষ শিশুর পদচারণায় স্টেশনের প্রতিটি প্লাটফর্মে অতিরিক্ত ভিড় ছিল। সঠিক সময় ট্রেন ছেড়ে না যাওয়ায় অনেকেই বিরক্ত বোধ করছিলেন।

খুলনাগামী সুন্দরবন এক্সপ্রেস ভোর ৬টা ২০ মিনিটে ছেড়ে যাওয়ার কথা থাকলেও সাড়ে ৮টার পর কমলাপুর স্টেশন ছেড়ে যায়। অন্যদিকে, উত্তরবঙ্গগামী ‘ধূমকেতু এক্সপ্রেস’ তিন ঘণ্টা বিলম্বে সাড়ে ৯টার দিকে ছেড়ে গেছে। রাজশাহীগামী ধূমকেতু এক্সপ্রেস কমলাপুর ছেড়ে যাওয়ার কথা নির্ধারিত সময় সকাল ৬টা।

সকাল ৮টায় চিলাহাটির উদ্দেশে ছেড়ে যাওয়ার কথা ছিল ‘নীলসাগর এক্সপ্রেস’। কিন্তু তা সেই সময় পর্যন্ত প্লাটফর্মে এসে পৌঁছায়নি। অধিকাংশ ট্রেনই বিলম্বে ছাড়ছে। এতে চরম ভোগান্তিতে পড়েছেন যাত্রীরা।

কমলাপুর রেলস্টেশনের ম্যানেজার মোহাম্মদ আমিনুল হক বলেন, যাত্রীদের কারণেই ট্রেন ছাড়তে দেরি হচ্ছে। কেননা ট্রেনে উঠতে ও নামতে বেশি সময় লাগছে। তারপরও আমাদের চেষ্টা থাকছে ট্রেন সঠিক ট্রেন ছেড়ে দিতে। ট্রেনের শিডিউল রাখতে সর্বোচ্চ চেষ্টা করা হচ্ছে।