পুরান ঢাকার ন্যাশনাল মেডিকেল কলেজকে সরকারিকরণ চেয়ে রিট

পুরাতন ঢাকার জনসন রোডে অবস্থিত ঢাকা ন্যাশনাল মেডিকেল কলেজকে সরকারিকরণের নির্দেশনা চেয়ে হাইকোর্টে রিট আবেদন দাখিল করা হয়েছে। কলেজটির গভর্নিং বডির সদস্য ড. ইউনুছ আলী আকন্দ রবিবার হাইকোর্টের সংশ্লিষ্ট শাখায় এ আবেদন দাখিল করেন। রিট আবেদনে প্রধানমন্ত্রী কার্যালয়ের সচিব, স্বাস্থ্য ও ভ‚মি সচিব, ঢাকা দক্ষিণ সিটি কর্পোরেশনের মেয়র, ন্যাশনাল মেডিকেল কলেজের অধ্যক্ষসহ সাতজনকে বিবাদী করা হয়েছে।

রিট আবেদনে বলা হয়, ১৯২৬ সালে ঢাকা ন্যাশনাল হাসপাতালটি প্রতিষ্ঠিত হয়। এরপর এটিকে কলেজে রুপান্তর করা হয়েছে। এই কলেজে বর্তমানে প্রায় ৬শ শিক্ষার্থী পড়াশুনা করছে। এর মধ্যে ৫০ শতাংশ ভারত, নেপাল, কাশ্মিরসহ বিভিন্ন দেশের শিক্ষার্থী রয়েছে। একজন শিক্ষার্থীর কাছ থেকে ৫ বছরে প্রায় ২৫ থেকে ৩২ লাখ টাকা নেওয়া হয়। কলেজটি বেসরকারি হওয়ার কারণে সেখানে বাণিজ্য হয়ে থাকে। প্রতিষ্ঠানটি সরকারি করা হলে বাণিজ্য বন্ধ হয়ে যাবে। শিক্ষার্থীরা বেশি বেশি সুবিধা পাবে।

ইউনুছ আলী আকন্দ বলেন, এই কলেজে একজন দেশীয় শিক্ষার্থী ভর্তির দিন দিতে হয় ১৮ লাখ টাকা। আর বিদেশীদের কাছ থেকে দেওয়া হয় ২৫ লাখ টাকা। তিনি বলেন, একটি সরকারি মেডিকেলে ভর্তির সময় নেওয়া হয় মাত্র ১০ হাজার টাকা। তিনি বলেন, দেশি শিক্ষার্থীদের কাছ থেকে প্রতিমাসে বেতন নেওয়া হয় ৮ হাজার টাকা আর বিদেশিদের কাছ থেকে নেওয়া হয় ২৫ হাজার টাকা। এছাড়াও অন্যান্য ভাতা হিসেবেও প্রচুর পরিমাণ টাকা নেওয়া হয়। সরকারি কলেজের চেয়ে বেসরকারি কলেজে অনেক বেশি টাকা নেওয়া হয়। এাট বৈষম্যমূলক। যা আমাদের সংবিধান পরিপন্থী।