ডেঙ্গু নিয়েই ভোট দিতে আসেন আলমগীর!

নায়ক আলমগীর ডেঙ্গু আক্রান্ত হয়ে রাজধানীর স্কয়ার হাসপাতালে চিকিৎসা নিচ্ছেন। এখন তার অবস্থা উন্নতির দিকে। আলমগীরের মেয়ে সংগীতশিল্পী আঁখি আলমগীর বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন।

আঁখি আলমগীর বলেন, জ্বর অনুভব করলে ২৫ জুলাই আব্বুকে স্কয়ার হাসপাতালে নিয়ে যায়। সেখানে পরীক্ষার পর বাবার ডেঙ্গু ধরা পড়ে। আগের তুলনায় বেশ ভালো আছেন, তবে শরীর খুব দুর্বল।

তবে ২৭ তারিখে প্রযোজক সমিতির নির্বাচনে আলমগীর ভোট দিতে আসেন। এ সময় তাঁকে অসুস্থ দেখা গেলেও তিনি যে ডেঙ্গু আক্রান্ত ছিলেন বিষয়টি জানাননি। বাংলাদেশ চলচ্চিত্র শিল্পী সমিতির সাধারণ সম্পাদক চিত্রনায়ক জায়েদ খান আলমগীরকে ধরে ভোটকেন্দ্রে নিয়ে যান। আবার ভোট প্রদান শেষে জায়েদ খানের হাত ধরেই কেন্দ্র থেকে বেরিয়ে আসেন।

এদিকে  জায়েদ খান মঙ্গলবার সকালে ডেঙ্গুর বিস্তার রোধ ও গুজবের প্রতিকারে আয়োজিত এক মানববন্ধনে অভিনেতা আলমগীরের সুস্থতার জন্য সবার দোয়া চেয়েছেন।

বাংলাদেশের জনপ্রিয় চলচ্চিত্রাভিনেতা। আলমগীর আশি ও নব্বইয়ের দশকে দাপটের সঙ্গে কাজ করেছেন। পারিবারিক টানাপোড়েন, সামাজিক অ্যাকশন, রোমান্টিক অ্যাকশন, ফোক ফ্যান্টাসিসহ সব ধরনের চলচ্চিত্রে তিনি ছিলেন সফল। অভিনয়ের পাশাপাশি প্রযোজক, গায়ক ও পরিচালক হিসেবে সুনাম কুড়িয়েছেন। তিনি শ্রেষ্ঠ অভিনেতা ও শ্রেষ্ঠ পার্শ্বচরিত্রে অভিনেতা বিভাগে ৯ বার জাতীয় চলচ্চিত্র পুরস্কার অর্জন করেছেন।

১৯৭৩ সালে ‘আমার জন্মভূমি’ সিনেমার মাধ্যমে চলচ্চিত্রে অভিষেক হয় চিত্রনায়ক আলমগীরের। প্রথম সিনেমাটি ব্যবসাসফল হয়। এরপর একের পর দর্শকপ্রিয় সিনেমা উপহার দেন গুণী এই অভিনেতা।