ডেঙ্গু নিধনে সরকারের কার্যকর কোনো ভূমিকা নেই : ফখরুল

সম্প্রতি আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ওবায়দুল কাদেরের দেওয়া এক বক্তব্যের সমালোচনা করে বিএনপি মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর বলেছেন, বিএনপি কখনোই গুজব নিয়ে রাজনীতি করে না। বিএনপি সবসময়ই সত্যের ওপর ভিত্তি করে নিষ্ঠার সাথে রাজনীতি করে। বিএনপি গোপন ষড়যন্ত্র ও চক্রান্তের রাজনীতি করে না।

আজ রবিবার দুপুরে ঠাকুরগাঁওয়ে তার কালিবাড়ির বাসভবনে নেতাকর্মীদের উদ্দেশ্যে এসব কথা বলেন। এ সময় অন্যান্যের মধ্যে জেলা বিএনপির সভাপতি তৈমুর রহমান ছাড়াও বিএনপির বিভিন্ন অঙ্গসংগঠনের অন্যান্য নেতাকর্মীরা উপস্থিত ছিলেন।

মির্জা ফখরুল বলেন, বাংলাদেশে যেভাবে ডেঙ্গু ছড়িয়ে পড়েছে তা এখন জাতীয় সমস্যা হয়ে দাঁড়িয়েছে। কিন্তু বর্তমান সরকার ও তার মন্ত্রীসভা এটিকে অত্যন্ত খাটো করে দেখছেন। যার ফলে এখন পর্যন্ত ডেঙ্গু নিধনে তেমন কোনো কার্যকর ভূমিকা দেখতে পাওয়া যায়নি।

তিনি বলেন, সরকারের দায়িত্ব ছিলো আক্রান্ত রোগীতে সুচিকিৎসা নিশ্চিত করা। কিন্তু ডেঙ্গু নিধনে সরকারের কোনো কার্যকর ভূমিকা চোখে পড়ছে না। অত্যন্ত দায়িত্বহীনতা ও ব্যর্থতার পরিচয় দিয়েছে সিটি কর্পোরেশন মেয়র ও সরকার।

মির্জা ফখরুল আরো বলেন, একটি দেশে যখন আইনের শাসন থাকবে না, মানুষকে মেরে ফেললে যখন তার কোনো জবাবদীহিতা থাকে না, তখন সেখানে গণপিটুনির মতো ঘটনা ঘটাই স্বাভাবিক। বিএনপি কি বলল তা না দেখে, দেশ যে সমস্যা চলছে তা সমাধানে সরকারের বেশি মনযোগী হওয়া উচিত।

তিনি বলেন, শেয়ার বাজার লুট করে নিয়ে যাওয়া পুরোনো বিষয়, কিন্তু সরকার এ বিষয়ে আজ পর্যন্ত কোনো পদক্ষেপ নেই। এ নিয়ে অনেক তদন্ত কমিটি গঠন করা হয়েছিল, কিন্তু সে তদন্ত প্রতিবেদন আজও প্রকাশ হয়নি। কারণ সে তদন্তে যাদের নাম এসেছে তারা এই সরকারের লোক।

নেতাকর্মীদের উদ্দেশে তিনি বলেন, সময় নির্ধারণ করে, প্রকৃতি নির্ধারণ করে আগে থেকে কিছু বলা যাবে না। আন্দোলন তার নিজস্ব গতিতে চলবে। সময়ই বলে দেবে কখন আন্দোলন শুরু হবে। গণতন্ত্রকে উদ্ধারের জন্য দেশনেত্রী বেগম খালেদা জিয়ার মুক্তিকে ছিনিয়ে আনার জন্য প্রস্তুত রয়েছে বিএনপি। কিন্তু সরকার ইচ্ছাকৃতভাবে বেগম খালেদা জিয়াকে বন্দি করে রেখেছে। তার সুচিকিৎসা হচ্ছে না। বিএনপি বারবার বলে আসছে, বেগম খালেদা জিয়ার ইচ্ছা অনুযায়ী তার পছন্দের চিকিৎসক দিয়ে তার সুচিকিৎসা দেওয়া হোক। কিন্তু সরকার ষড়যন্ত্র করে একজন সাবেক প্রধান মন্ত্রীকে সুচিকিৎসা ও মুক্তি দিচ্ছে না। তাই দ্রুত বেগম খালেদা জিয়াকে মুক্তি দিয়ে নিরপেক্ষ সরকারের অধীনে একটি সুষ্ঠু নির্বাচন দিতে সরকারের প্রতি আহ্বান জানান ফখরুল।

আর তা না হলে বিএনপি দেশের মানুষকে সাথে নিয়ে গণআন্দোলনের মাধ্যমে গণতন্ত্র প্রতিষ্ঠা করতে বাধ্য হবে। সেই সাথে নিরপেক্ষ সরকারের অধীনে নির্বাচন দিতে সরকারকে বাধ্য করবে বলে হুঁশিয়ার করেন মির্জা ফখরুল।