‘একবার টিকিট কেটে হলে ঢুকলে আর বের হতে হবে না’

গতকাল বাংলাদেশে মুক্তি পেয়েছে নুসরাত ফারিয়া অভিনীত কলকাতার ছবি ‘বিবাহ অভিযান’। ২১ জুন কলকাতায় মুক্তি পেয়েছিল ছবিটি। বিরসা দাসগুপ্তের পরিচালনায় ছবিটি চলছে দেশের ৫৩টি হলে। ফারিয়ার সঙ্গে কথা বলেছেন সুদীপ কুমার দীপ

অপেক্ষার পালা তাহলে শেষ। দেশের দর্শকরাও এবার ‘বিবাহ অভিযান’ দেখতে পাবে।

অনেক ভালো লাগছে। কলকাতায় ছবিটি মুক্তি পাওয়ার পর থেকেই দিন গুনেছি কবে বাংলাদেশের দর্শকরা ছবিটি দেখবেন! গতকাল সে অপেক্ষার অবসান ঘটেছে। সারা দেশের অর্ধশতাধিক হলে ছবিটি চলছে। দারুণ সাড়াও পাচ্ছি। ভালো কিছু হবে বলে মনে হচ্ছে।

ছবির প্রচারণায় নায়ক, পরিচালক—কেউই এলেন না…
আমার প্রথম ছবি ‘আশিকী’র সময়ও নায়ক অঙ্কুশ বাংলাদেশে আসতে পারেননি। তখন আমি একাই সব সামলে নিয়েছিলাম। এবারও তা-ই করছি। টিভি মিডিয়া, প্রিন্ট মিডিয়া থেকে শুরু করে রেডিও—সব একা সামলাচ্ছি। তবে খারাপ লাগছে না। বরং মনে হচ্ছে প্রথম ছবির মতো আবার নতুন করে শুরু করছি।

আমদানি নীতিতে সম্প্রতি মুক্তি পাওয়া কলকাতার দুই তারকা জিৎ-দেবের ‘শেষ থেকে শুরু’ ও ‘কিডন্যাপ’ কিন্তু এ দেশে ব্যবসা করেনি। ‘বিবাহ অভিযান’ নিয়ে কতটা আশাবাদী?

কলকাতায় এক মাস ধরে ছবিটি চলছে। এ সপ্তাহেও সেখানে অনেক নতুন হলে মুক্তি পেয়েছে। দর্শকদের প্রতিক্রিয়া দারুণ। আমার মনে হয় বাংলাদেশে কিছুদিন ধরে যে দর্শকখরা চলছে তা এই ছবির মাধ্যমে শেষ হবে।

বাংলাদেশের দর্শক ছবিটি কেন দেখবে?
এটা সম্পূর্ণ বিনোদননির্ভর ছবি। একবার টিকিট কেটে হলে ঢুকলে আর বের হতে হবে না। পুরোটা সময় উপভোগ করতে পারবেন। যেমন গল্প, তেমন গান আর অভিনয়ে ঠাসা একটি বাণিজ্যিক ছবি। যা বাংলাদেশের দর্শকরা খুব পছন্দ করেন।

নতুন কোনো খবর?
আপাতত ‘বিবাহ অভিযান’ নিয়ে সপ্তাহটা পার করতে চাই। ‘ঢাকা ২০৪০’ তো আছেই, সামনে কিছু নতুন খবর আসছে। সময়মতো জানিয়ে দেব।