চাকরি বাঁচানোর উপায় নেই হাতুরাসিংহের

বিশ্বকাপে ব্যর্থতার পর শ্রীলঙ্কার কোচের পদ থেকে চন্দিকা হাতুরাসিংহেকে সরানোর জোরালো দাবি এখন বাস্তব রূপ নিয়েছে ক্রীড়ামন্ত্রীর লিখিত সুপারিশে। শ্রীলঙ্কার ক্রীড়ামন্ত্রী হারিন ফার্নান্দো আগে মৌখিক নির্দেশ দিয়েছিলেন শ্রীলঙ্কার কোচিং স্টাফকে ছাঁটাই করার। এখানেই ইতি না টেনে গত সোমবার মন্ত্রণালয় থেকে লিখিত সুপারিশ শ্রীলঙ্কার ক্রিকেট বোর্ডের সচিব বরাবর পাঠিয়েছেন। বোর্ড সচিব মোহন ডি সিলভা বলছেন, এ চিঠির আদেশ পালনের বাইরে যাওয়ার এখতিয়ার তাঁদের নেই। তাই ক্রমাগত কোচ নিয়োগ এবং ছাঁটাইয়ের ফলে বোর্ডের ভাবমূর্তি ক্ষুণ্ন হলেও ক্রীড়ামন্ত্রীর আদেশ মেনে চন্দিকা হাতুরাসিংহেকে ছাঁটাই করতেই হচ্ছে এসএলসির। এর ফলে বাংলাদেশের সঙ্গে তিন ওয়ানডের সিরিজের পরই কার্যত শ্রীলঙ্কায় শেষ হয়ে যাচ্ছে হাতুরা অধ্যায়। তাহলে কি বাংলাদেশে শুরু হবে হাতুরাসিংহের দ্বিতীয় অধ্যায়?

এসএলসি সচিব মোহন ডি সিলভার কথাতেই স্পষ্ট হাতুরাসিংহের ভবিষ্যৎ, ‘আমরা একটি জটিল পরিস্থিতির ভেতর দিয়ে যাচ্ছি, যেখানে আমাদের পেশাদারদের নিয়ে কাজ করতে হচ্ছে। আমরা জানি যে গত কয়েক বছরে ঢালাওভাবে কোচ নিয়োগ ও বরখাস্ত করার কারণে আমাদের ভাবমূর্তি ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে। আমরা জানি আমাদের দায়িত্ব কতটুকু; আর আমাদের সাধ্য নেই মন্ত্রীর সুপারিশের বিপক্ষে যাওয়ার।’ তিনি আরো জানিয়েছেন, চুক্তির ধারা অনুযায়ী কিছু বাধা এখনো আছে, তবে চূড়ান্ত সিদ্ধান্তটি বোর্ডের নির্বাহী কমিটি বৈঠক করে জানিয়ে দেবে। ২০১১ সালের পর থেকে ২০১৭ পর্যন্ত অন্তর্বর্তীকালীন ও পূর্ণ মেয়াদে মিলিয়ে ১১ জনকে কোচ হিসেবে নিয়োগ দিয়েছে শ্রীলঙ্কা। দি আইল্যান্ড