ভারত জাতিসংঘ নিরাপত্তা পরিষদের স্থায়ী সদস্যপদ পাবে, কিন্তু…

ভারতের পররাষ্ট্রমন্ত্রী এস জয়শঙ্কর ভারত একদিন জাতিসংঘ নিরাপত্তা পরিষদের স্থায়ী সদস্যপদ পাবে বলে মন্তব্য করছেন। কিন্তু সেই প্রাপ্তি সহজ হবে না বলেই মনে করেন তিনি। তিনি বলেন, এজন্য দেশকে আরও কঠোর পরিশ্রম করতে হবে। খবর এনডিটিভি।

গুজরাটের রাজকোট শহরে বুদ্ধিজীবীদের সাথে এক আলাপচারিতায় শ্রোতারা তাকে বিশ্ব সংস্থার স্থায়ী সদস্য হওয়ার সম্ভাবনা সম্পর্কে জিজ্ঞাসা করেছিলেন। তখন তিনি এই মন্তব্য করেন।

জয়শঙ্কর বলেন, জাতিসংঘ প্রায় ৮০ বছর আগে প্রতিষ্ঠিত হয়েছিল। পাঁচটি দেশ – চীন, ফ্রান্স, রাশিয়ান ফেডারেশন, যুক্তরাজ্য এবং মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র – এর নিরাপত্তা পরিষদের স্থায়ী সদস্য হওয়ার সিদ্ধান্ত নেয়। সে সময় বিশ্বে মোট ৫০টি স্বাধীন দেশ ছিল, যা সময়ের সাথে সাথে বেড়ে প্রায় ১৯৩টি হয়েছে।

জয়শঙ্কর আরও বলেন, এই পাঁচটি জাতি তাদের নিয়ন্ত্রণ ধরে রেখেছে। এটা আশ্চর্যজনক যে আপনাকে নিজের পরিবর্তনের জন্যও তাদের সম্মতি নিতে হবে। কেউ সততার সাথে তাদের অবস্থান তুলে ধরলেও কেউ কেউ পিছনে থেকে এর বিপরীতে কলকাঠি নাড়েন। বছরের পর পছর ধরেই এসব চলে আসছে।

মন্ত্রী পরে বলেন, কিন্তু এখন বিশ্বজুড়ে একটি অনুভূতি হচ্ছে যে এই অবস্থার পরিবর্তন হওয়া উচিত এবং ভারতের একটি স্থায়ী আসন পাওয়া উচিত। প্রতি বছর এই অনুভূতি বাড়তে দেখি।

জয়শঙ্কর জানান, ভারত, জাপান, জার্মানি এবং মিশর একসাথে জাতিসংঘের সামনে এই বিষয়ে একটি প্রস্তাব পেশ করেছে এবং তিনি বিশ্বাস করেন যে এটি বিষয়টিকে কিছুটা এগিয়ে নিয়ে যাবে।

গত সপ্তাহে ভারত মহাসাগর সম্মেলনে যোগ দিতে দু’দিনের সফরে অস্ট্রেলিয়ার পার্থ্‌ শহরে গিয়েছিলেন জয়শঙ্কর। সেখানে ভারতীয় সম্প্রদায়ের সঙ্গে আলাপচারিতায় তিনি জানান, ‘‘আমরা ওখানে (স্থায়ী সদস্যপদে) পৌঁছাব। আমি শতভাগ নিশ্চিত সে ব্যাপারে। তবে এটাও বলতে চাই যে, কাজটি খুব সহজ হবে না। দুনিয়াজোড়া প্রতিযোগিতা চলছে। অনেকেই আমাদের আটকাতে চাইবে। তারা স্থায়ী আসন পর্যন্ত পৌঁছনোর রাস্তাটাকে কঠিন করে তুলবে, বাধা দেবে। অনেক বিতর্ক সৃষ্টি করবে। তবে স্থায়ী সদস্যপদ পাওয়ার ব্যাপারে আজ আমি অনেকটাই আত্মবিশ্বাসী। পাঁচ বা দশ বছর আগে যতটা ছিলাম তার চেয়ে বেশিই।’’

এস/ভি নিউজ

পূর্বের খবরডিএসসিসির লাল জোনে বসবে না হকারের দোকান
পরবর্তি খবরমার্চে রপ্তানি আয় বেড়েছে ১০ শতাংশ