লিটন-হৃদয়ের ঝড়ে টানা তৃতীয়বার ফাইনালে কুমিল্লা

মিরপুরের উইকেটে স্কোরবোর্ডে ১৮৫ মানেই বড় রান। তাও আবার সরাসরি বিপিএলের ফাইনালে যাওয়ার লড়াইয়ে। ওই রান পানির মতো তাড়া করেছে কুমিল্লা ভিক্টোরিয়ান্স। বড় রান তাড়ায় দুর্দান্ত ব্যাটিং করেছেন কুমিল্লার অধিনায়ক লিটন দাস ও তিনে ব্যাটিং করা তাওহীদ হৃদয়। তাদের ব্যাটে ৬ উইকেটের বড় জয়ে টানা তৃতীয়বার বিপিএলের ফাইনালে উঠেছে ভিক্টোরিয়ান্স।

শিশিরের সুবিধা কাজে লাগিয়ে সহজে রান তাড়া করতে টস জিতে বোলিং নিয়েছিল কুমিল্লা ভিক্টোরিয়ান্স। দারুণ বোলিংয়ে ২৭ রানে রংপুর রাইডার্সের ৩ উইকেট তুলে নিয়েছিল তারা। কিউই অলরাউন্ডার জেমি নিশামের দুর্দান্ত ব্যাটিংয়ে সেখান থেকে বড় সংগ্রহ পায় রংপুর।

জেমি নিশাম ৪৯ বলে খেলেন ৯৭ রানের হার না মানা ইনিংস। তার ব্যাট থেকে সাতটি ছক্কার সঙ্গে আটটি চারের শট আসে। এছাড়া নুরুল হাসান ২৪ বলে ৩০ রানের ইনিংস খেলেন। শেখ মাহেদি করেন ২২ রান।

জবাব দিতে নেমে ইনিংসের প্রথম বলেই আউট হন কুমিল্লার হয়ে ওপেনিং করা সুনীল নারিন। তবে অন্য ওপেনার লিটন দাস ও তিনে নামা তাওহীদ হৃদয় ওই ধাক্কা দলের গায়ে লাগতে দেননি। তারা ১৪৩ রানের দুর্দান্ত জুটি গড়েন। হৃদয় ফিরে যাওয়ার আগে খেলেন ৪৩ বলে ৬৪ রানের ইনিংস। তার ব্যাট থেকে পাঁচটি চার ও চারটি ছক্কার শট আসে।

লিটন দাস খেলেন দলের পক্ষে সর্বোচ্চ ৮৩ রানের ইনিংস। দলকে জয়ের প্রান্তে এনে ৫৭ বলে নয়টি চার ও চারটি ছক্কার শটে ওই ইনিংস খেলে আউট হন তিনি। নয় বল বাকি থাকতে জয় তুলে নেয় কুমিল্লা। এর আগে গত দুই আসরে ফাইনালে উঠে শিরোপাও জিতেছে কুমিল্লা। দলটির জন্য এবার হ্যাটট্রিক শিরোপার হাতছানি। অন্য দিকে দ্বিতীয় কোয়ালিফায়ারে আগামী বুধবার বরিশাল ও রংপুর মুখোমুখি হবে। ফাইনালের জন্য লড়বেন সাকিব ও তামিমের দল।

এস/ভি নিউজ

পূর্বের খবরবইমেলার ৪৪৮ নম্বর স্টলে পাওয়া যাচ্ছে ‘গণমাধ্যমে হাতেখড়ি’
পরবর্তি খবরবিদ্যুৎ ক্রয়: নেপালের সঙ্গে দর কষাকষিতে বাংলাদেশ