১৮ দেশের মুভি নিয়ে বগুড়ায় শুরু হচ্ছে ৪র্থ আন্তর্জাতিক চলচ্চিত্র উৎসব

করতোয়া বিধৌত পুণ্ড্রনগরের হাজার বছরের ঐতিহ্যমণ্ডিত প্রাচীন জনপদের শহর বগুড়ায় ১৫ ফেব্রুয়ারি শুরু হচ্ছে ৪র্থ বগুড়া আন্তর্জাতিক চলচ্চিত্র উৎসব। গত ৪ বছর যাবত পুণ্ড্রনগর চলচ্চিত্র সংসদ বগুড়ার আয়োজনে অনুষ্ঠিত হয়ে আসছে এ আন্তর্জাতিক চলচ্চিত্র উৎসবটি।

তারই ধারাবাহিকতায় গত ১৩ ই ফেব্রুয়ারি উৎসব লোগো ও প্রকাশনার মোড়ক উন্মোচনের মধ্যদিয়ে শুরু হয়েছে চতুর্থ আয়োজন। উৎসব চেয়ারম্যান এম রহমান সাগরের সভাপতিত্বে মোড়ক উন্মোচন অনুষ্ঠানে স্বাগত বক্তব্যে উৎসব পরিচালক সুপিন বর্মন জানান, এইবারের উৎসবে ১৮ দেশের মোট ৪৫টি স্বল্পদৈর্ঘ্য, প্রামাণ্য ও পূর্ণদৈর্ঘ্য চলচ্চিত্র প্রদর্শিত হবে।  ৪টি ক্যাটাগরিতে  দেয়া হবে শ্রেষ্ঠ চলচ্চিত্রের পুরস্কার। উৎসবে জুরি হিসেবে রয়েছে ভারত থেকে ধার্মেন্দার ডাঙ্গী, ড. আবিদ, নেপাল থেলে কেপি পাটক, শ্রীলঙ্কা থেকে রোদনি রাথিপানা, জার্মানি থেকে ইন্দো স্টারজ  এবং বাংলাদেশ থেকে আশরাফ শিশির ও সাদিয়া খালিদ রীতি।  চলচ্চিত্র উৎসবের মূল ভেন্যু বগুড়া জেলা শিল্পকলা একাডেমিতে ১৫ ফেব্রুয়ারি বিকেল তিনটায় শুরু হবে চলচ্চিত্র নির্মাণ বিষয়ক কর্মশালা। প্রশিক্ষণ প্রদান করবেন নেপালের চলচ্চিত্র নির্মাতা অরুন দেও জোসি। বিকেল ৪টায় শুরু হবে চলচ্চিত্রের প্রদর্শনী এবং আনুষ্ঠানিকভাবে উৎসবের উদ্বোধন করা হবে বিকেল ৫টায়।

উদ্বোধন করবেন পুণ্ড্র বিশ্ববিদ্যালয়ের মাননীয় উপাচার্য অধ্যাপক ড. চিত্তরঞ্জন মিশ্র। প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত থাকবেন পুলিশ সুপার সুদীপ কুমার চক্রবর্তী বিপিএম,পিপিএম। উদ্বোধনের পর থেকে রাত নয়টা পর্যন্ত চলবে প্রথম দিনের জন্য নির্ধারিত চলচ্চিত্রের প্রদর্শনী।

উৎসবের দ্বিতীয় দিনে সকাল ১০ টা থেকে শুরু হবে চলচ্চিত্র প্রদর্শনী। এতে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত থাকবেন অধ্যক্ষ প্রকৌশলী মোঃ সাহাবুদ্দীন সৈকত।  দুপুর ২টায় থাকবে চলচ্চিত্র বিষয়ক মাস্টার ক্লাস। ক্লাস পরিচালনা করবেন ভারতের ফিল্ম কেউরেটর শান্তনু গাংগুলি। এর পর তিনটায় শুরু হবে চলচ্চিত্র নির্মাণ কর্মশালা এবং বিকেল চারটা থেকে নির্ধারিত চলচ্চিত্রের প্রদর্শনী, চলবে রাত নটা পর্যন্ত।

উৎসবে তৃতীয় দিনে সকাল ১০টায় জেলা শিল্পকলা একাডেমি ও পুণ্ড্র ইউনিভার্সিটি অব সায়েন্স অ্যান্ড টেকনোলজি মিলনায়তনে দেখা যাবে ১০টি স্বল্পদৈর্ঘ্য চলচ্চিত্র। দুপুর ২টায় চলচ্চিত্র নির্মাণ বিষয়ক কর্মশালা, প্রশিক্ষণ প্রদান করবেন নেপালের চলচ্চিত্র নির্মাতা অরুন দেও জোসি।

বিকেল ৩টায় স্বাধীন চলচ্চিত্রের বিপণণ ও বাজারজাতকরণ শিরোনামে মাস্টার ক্লাস। ক্লাস পরিচালনা করবেন নির্মাতা খন্দকার সুমন, হোস্টিং এ থাকবেন নির্মাতা ও উদ্যোক্তা আনন্দ কুটুম।

বিকেল চারটায় থাকবে চলচ্চিত্র প্রদর্শনী এবং শিশুদের পোস্টার ডিজাইন প্রতিযোগিতা।

আনুষ্ঠানিকভাবে শ্রেষ্ঠ চলচ্চিত্রের পুরস্কার ও পুণ্ড্রনগর সম্মাননা প্রদান একই সাথে সমাপনী ঘোষণা  করা হবে বিকেল ৫টায়। সমাপনী অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত থাকবেন বগুড়া ৬ আসনের সাংসদ জনাব রাগেবুল আহসান রিপু। পুণ্ড্রনগর সম্মাননা পাবেন কবি ও প্রাবন্ধিক বজলুল করিম বাহার এবং নাট্যজন তৌফিক হাসান ময়না। এরপর রাত নটা পর্যন্ত চলবে নির্ধারতি চলচ্চিত্রের প্রদর্শনী। উৎসবের অংশ হিসেবে ১৮ ফেব্রুয়ারি সন্ধ্যা ৬ টায় বগুড়ার মধুবন সিনেপ্লেক্সে প্রদর্শন করা হবে উৎসবে পুরস্কার প্রাপ্ত চলচ্চিত্র এবং সুপিন বর্মন নির্মিত চলচ্চিত্র সুখের সংসার ও আ লেটার অব পোস্টমাস্টার।

বগুড়ার একমাত্র চলচ্চিত্র বিষয়ক সংগঠন পুণ্ড্রনগর চলচ্চিত্র সংসদের এ আয়োজনে ভারত, নেপাল, ইতালী, বাংলাদেশসহ মোট ৪ দেশের ৩০জন চলচ্চিত্র নির্মাতা ও কলাকুশলী বগুড়ায়  চলে এসেছেন বলে জানান আয়োজক কমিটি।

পূর্বের খবরবগুড়া নান্দনিক নাট্য দলের সদস্য বাচ্চু মিয়ার মৃত্যুতে শোক প্রকাশ
পরবর্তি খবরসেন্ট জেভিয়ার্স কলেজ কলকাতা প্রাক্তনী সংসদ আন্তর্জাতিক মাতৃভাষা দিবস উদযাপন করবে শুক্রবার