আখেরি মোনাজাতের মাধ্যমে শেষ হয়েছে বিশ্ব ইজতেমার প্রথম পর্ব।

126
বিশ্ব ইজতেমার

টঙ্গীর তুরাগতীরে লাখো মানুষের অংশগ্রহণে আখেরি মোনাজাতের মাধ্যমে শেষ হয়েছে বিশ্ব ইজতেমার প্রথম পর্ব। রোববার (১৪ জানুয়ারি) সকাল ৯টা ৫৫ মিনিটে শুরু হওয়া প্রথম পর্বের আখেরি মোনাজাত শেষ হয় সকাল ১০টা ২০ মিনিটে। আখেরি মোনাজাত পরিচালনা করছেন তাবলিগ জামাতের কাকরাইলের শুরা সদস্য হাফেজ মাওলানা মুহাম্মদ জুবায়ের। তুরাগতীরে যখন বিশ্ব ইজতেমার আখেরি মোনাজাত চলছে তখন মুসল্লিদের সেই ঢল এসেছে ঠেকেছে রাজধানীর বিমানবন্দর সড়কেও।

ইজতেমাগামী লোকদের মাঝে ফ্রিতে খেজুর, পানি ও শরবত বিতরণ

গণপরিবহন বন্ধ থাকায় ইজতেমাস্থলে পৌঁছে আখেরি মোনাজাতে অংশ নিতে পায়ে হেঁটেই মাইলের পর মাইল এগিয়ে যাচ্ছেন মুসল্লিরা। যতদূর চোখ যায় ততদূর পর্যন্তই দেখা যাচ্ছে শুধু মুসল্লিদের ঢল। আর এসব মুসল্লিদের যাত্রাপথে সেবা দিতে উদগ্রীব হয়ে আছেন অনেকেই। কেউ প্রতিষ্ঠানের পক্ষে কেউবা নিজ উদ্যোগে এসব মুসল্লিদের সেবা দিতে পাগলপারা হয়ে আছেন।

আখেরি মোনাজাতে অংশ নিতে পায়ে হেঁটে পথে যেসব মুসল্লিরা যাচ্ছেন, পথে পথে তাদের খেজুর, পানি ও শরবত খাওয়াতে বিভিন্ন প্রতিষ্ঠান এবং ব্যক্তিরা উদগ্রীব হয়ে আছেন। মুসল্লিদের যাত্রাপথে এভাবেই সবার হাতে হাতে এসব খাবার পৌঁছে দিতে দেখা গেছে।

বিমানবন্দর সড়ক

যাত্রাপথে বিমানবন্দরের আগে কাউলা এলাকায় একইভাবে খেজুর আর পানি পথিক মুসল্লিদের কাছে পৌঁছে দিচ্ছিলেন হামিদুর রহমান নামের এক স্থানীয় বাসিন্দা। তিনি বলেন, আমি ব্যক্তিগত উদ্যোগে প্রতিবারই এমন আয়োজন করি। এটা একটা আলাদা অনুভূতির বিষয়। লাখ লাখ মুসল্লি হেঁটে হেঁটে আখেরি মোনাজাতে অংশ নিতে যাচ্ছেন, তাদের একটু পানি ও খেজুর দিয়ে সেবা করতে পারা একটা ভালোলাগার বিষয়। মূলত মুসল্লিদের সেবার মাধ্যমে সওয়াব পাওয়ার আশায় এমন উদ্যোগ নেওয়া।

পরের পর্বে আগামী ২০ জানুয়ারি ফজর থেকে দ্বিতীয় পর্বের ইজতেমায় অংশ নেবেন মাওলানা সাদ আহমাদ কান্ধলভীপন্থি মাওলানা অনুসারী মুসল্লিরা। ২২ জানুয়ারি আখেরি মোনাজাতের মধ্যদিয়ে শেষ হবে দ্বিতীয় পর্বের বিশ্ব ইজতেমার এবারের আয়োজন।

আরও পড়ুন: হাডসন ইন্টারন্যাশনাল স্কুল চিত্রাঙ্কন প্রতিযোগিতা-২০২৩