শীতে কাঁপছে উত্তরাঞ্চল

218

কনকনে শীতে উত্তরাঞ্চলে জনদুর্ভোগ পোহাচ্ছেন দরিদ্র মানুষ। এ জন্য ফেরি চলাচল বিঘ্নিত হচ্ছে। এ ছাড়া তীব্র শীত ও ঘনকুয়াশার কারণে সারা দিনেও সূর্যের দেখা মিলছে না। হিলি স্থলবন্দরে পণ্য  লোড-আনলোড কার্যক্রম বাধাগ্রস্ত হয়েছে। ঘন কুয়াশায় বছরের প্রথম সূর্যোদয় উপভোগ করতে পারেননি কুয়াকাটা সমুদ্র সৈকতের পর্যটকরা। প্রতিনিধিদের পাঠানো তথ্য।

কুড়িগ্রাম : উত্তরের জেলা কুড়িগ্রামে কনকনে শীত ও ঘন কুয়াশায় জনজীবন বিপর্যস্ত হয়ে পড়েছে। সকাল থেকে ঘন কুয়াশা বাড়তে থাকে।  এ ছাড়াও দুপুরের আগ পর্যন্ত আকাশ মেঘে ঢাকা থাকে। তিন দিন ধরে জেলার তাপমাত্রা কমছে। গতকাল সকাল ৯টায় স্থানীয় আবহাওয়া    অফিস ১২ দশমিক ৩ ডিগ্রি সেলসিয়াস তাপমাত্রা রেকর্ড করেছে।

এ অবস্থায় নিম্ন আয়ের মানুষের ভোগান্তি   ক্রমেই বাড়ছে। এদিকে, অতিরিক্ত ঠান্ডায় ঘর থেকে মানুষজন বের হতে পারছেন না। সদ্য রোপণ করা বোরো বীজতলাগুলো ঠান্ডায় ক্ষতিগ্রস্ত হওয়ার আশঙ্কা করা হচ্ছে। গবাদি পশু ও বিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীরাও পড়েছে এ ঠান্ডায়  চরম বিপাকে।

 

হিলি (দিনাজপুর) : দেশের সবচেয়ে উত্তরের জেলা দিনাজপুরের হিলিতে গত কয়েকদিন ধরেই শীত অব্যাহত রয়েছে। বৃষ্টির মতো ঝড়ছে ঘন কুয়াশা। সেই সঙ্গে হিমেল বাতাস শীতের মাত্রাকে আরও বাড়িয়ে তুলেছে। বন্দর দিয়ে দুই দেশের আমদানি-রপ্তানি কার্যক্রম স্বাভাবিক থাকলেও তীব্র শীতের কারণে বন্দরে পণ্য লোড-আনলোড কার্যক্রম বিলম্বে শুরু হচ্ছে। শীতের কারণে ঠিকমতো কাজ করতে না পারায় আয় কমে যাওয়ায় বিপাকে পড়েছেন শ্রমিকরা আক্রান্ত হচ্ছেন শীতজনিত নানা রোগে। দিনের বেশিরভাগ সময় ধরে দেখা মিলছে না সূর্যের সারা দিন আকাশ মেঘাচ্ছন্ন থাকছে। মাঝে কিছুটা সময়ের জন্য সূর্যের দেখা মিললেও উত্তাপ নেই বললেই চলে। গত দুই দিন ধরে প্রচন্ড কুয়াশার কারণে দিনের বেলায়ও সড়কে  হেডলাইট জ্বালিয়ে যানবাহনগুলো চলাচল করছে।

কলাপাড়া (পটুয়াখালী) : বছরের প্রথম সূর্যোদয়কে স্বাগত ও নতুন বছরকে বরণ করতে সাগরকন্যা কুয়াকাটা সমুদ্র সৈকতে ভিড় জমিয়েছে হাজারো পর্যটক। কাকডাকা ভোরে সৈকতের জিরো পয়েন্ট, ঝাউবন, লাল কাঁকড়ার চর ও গঙ্গামতীতে ভিড় জমায় পর্যটকরা। তবে ঘন কুয়াশায় পুবের আকাশে সূর্যোদয় উপভোগ করতে না পারলেও সকালের প্রকৃতি দেখে মুগ্ধ হয়েছে তারা।