ডা. এসএ মালেকের মৃত্যুতে কানাডায় প্রবাসীদের শোক

203

কানাডার ক্যালগেরিতে আলবার্টা আওয়ামী লীগ, কানাডা এবং আলবার্টা বঙ্গবন্ধু পরিষদ কানাডার পক্ষ থেকে ডা. এসএ মালেকের মৃত্যুতে গভীর শোক প্রকাশ করা হয়েছে। 

কানাডার স্থানীয় সময় বুধবার (০৭ ডিসেম্বর) সন্ধ্যায় এক ভার্চুয়াল আলোচনা সভায় এই শোক প্রকাশ করা হয়। এসময় উপস্থিত ছিলেন আলবার্টা আওয়ামী লীগের সভাপতি প্রকৌশলী মোহাম্মদ কাদির,  সাধারণ সম্পাদক এন্থনি জ্যাকব, আলবার্টা বঙ্গবন্ধু পরিষদের সভাপতি আব্দুল্লা রফিক, বিশিষ্ট কমিউনিটি ব্যক্তিত্ব ও রিয়েল স্টেট ব্যবসায়ী কিরন বণিক শংকর এবং বিশিষ্ট কলামিস্ট, উন্নয়ন গবেষক ও সমাজতাত্ত্বিক বিশ্লেষক মো. মাহমুদ হাসান।

বক্তারা আওয়ামী লীগের উপদেষ্টা পরিষদের সদস্য ও প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার সাবেক রাজনৈতিক উপদেষ্টা এবং বঙ্গবন্ধু পরিষদের সভাপতি বীর মুক্তিযোদ্ধা ডা. এস এ মালেকের মৃত্যুতে গভীর শোক প্রকাশ করে তার বিদেহী আত্মার মাগফিরাত কামনা করেন এবং শোকসন্তপ্ত পরিবারের প্রতি গভীর সমবেদনা জ্ঞাপন করেন।

আলবার্টা আওয়ামী লীগের সভাপতি প্রকৌশলী মোহাম্মদ কাদির ডা. এসএ মালেকের মৃত্যুতে গভীর শোক প্রকাশ করে বলেন, বঙ্গবন্ধুর আদর্শের বিশ্বস্ত অনুসারী এই বীর মুক্তিযোদ্ধার মৃত্যুতে জাতির অপূরনীয় ক্ষতি হয়েছে। লেখনীর মাধ্যমে বঙ্গবন্ধুর আদর্শকে বাচিয়ে রাখতে দুঃসময়ে তিনি অসামান্য অবদান রেখেছেন। ১৯৮১ সালে শেখ হাসিনার স্বদেশ প্রত্যাবর্তনে পর, তার পাশে থেকে সহযোগিতার মাধ্যমে বঙ্গবন্ধু কন্যাকে সহযোগিতা করেছেন। তিনি তার শোকসন্তপ্ত পরিবারের প্রতি গভীর সহমর্মিতা জানিয়েছেন। 

আলবার্টা বঙ্গবন্ধু পরিষদের সভাপতি আব্দুল্লা রফিক বলেন, ৭৫’ এর পরবর্তী সময়ে বিভিন্ন সেমিনার, সিম্পোজিয়ামের মাধ্যমে বঙ্গবন্ধুর নাম উচ্চারন করে তিনি সাহসিকতার পরিচয় দিয়েছিলেন। তার মৃত্যু দেশের জন্য অপূরণীয় ক্ষতি। তার শোকসন্তপ্ত পরিবারের প্রতি গভীর সহমর্মিতা জ্ঞাপন করছি। 

আলবার্টা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক এন্থনী  জ্যাকব বলেন, মরহুম ডা. এসএ মালেক  ৬ দফা আন্দোলন, ভাষা আন্দোলন ও বাংলাদেশের স্বাধীনতা যুদ্ধে অংশগ্রহণসহ তৎকালীন সকল রাজনৈতিক কর্মকাণ্ডে সক্রিয় ভূমিকা রাখেন। তার মৃত্যু দেশের জন্য এক অপূরনীয় ক্ষতি। তার বিদেহী আত্মার মাগফিরাত কামনা করছি।

বিশিষ্ট কমিউনিটি ব্যক্তিত্ব ও রিয়েল স্টেট ব্যবসায়ী কিরণ বণিক শংকর বলেন, দেশের জন্য তার অবদান জাতি চিরকাল স্মরণ রাখবে। বিশেষ করে ১৯৮১ সালে জাতির পিতার কন্যা শেখ হাসিনা আওয়ামী লীগের সভানেত্রীর দায়িত্ব গ্রহণ করে দেশে ফেরার পর যারা তাকে সহযোগিতা করেছিলেন তাদের অন্যতম ছিলেন ডা. এস এ মালেক। তিনি তার বিদেহী আত্মার মাগফেরাত কামনা করে শোকসন্তপ্ত পরিবারের প্রতি গভীর সমবেদনা প্রকাশ করেন।

কলামিস্ট উন্নয়ন গবেষক ও সমাজতাত্ত্বিক বিশ্লেষক মো. মাহমুদ হাসান বলেন, বুদ্ধিবৃত্তিক চর্চার মাধ্যমে পঁচাত্তর পরবর্তী সময়ে যারা আওয়ামী লীগের পাশে ছিলেন ডা. এসএ মালেক ছিলেন তাদের অন্যতম। নানা চড়াই উৎরাই আর প্রতিকূল পরিবেশের মধ্যেও তিনি পরবর্তী প্রজন্মের মাঝে বঙ্গবন্ধুর আদর্শকে ছড়িয়ে দিতে অসামান্য অবদান রেখেছেন। বঙ্গবন্ধু পরিষদ সভাপতি এসএ মালেকের মৃত্যুতে জাতি একজন নির্লোভ বঙ্গবন্ধু অনুসারীকে হারিয়েছে। তিনি তার বিদেহী আত্মার মাগফেরাত কামনা করে শোকসন্তপ্ত পরিবারের প্রতি গভীর সমবেদনা প্রকাশ করেন।

উল্লেখ্য আওয়ামী লীগের উপদেষ্টা পরিষদের সদস্য ও প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার সাবেক রাজনৈতিক উপদেষ্টা এবং বঙ্গবন্ধু পরিষদের সভাপতি বীর মুক্তিযোদ্ধা ডা. এস এ মালেক
গত মঙ্গলবার (৬ ডিসেম্বর) রাত ১১.১০ মিনিটে বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব মেডিকেল বিশ্ববিদ্যালয়ে আকস্মিকভাবে হৃদযন্ত্রের ক্রিয়া বন্ধ হয়ে ইন্তেকাল করেন।