যুক্তরাষ্ট্র নতুন করে নিষেধাজ্ঞা দেবে না : পররাষ্ট্র প্রতিমন্ত্রী

122

মার্কিন প্রশাসন নতুন করে কোনো নিষেধাজ্ঞা দেবে না বলে আশা প্রকাশ করেছেন পররাষ্ট্র প্রতিমন্ত্রী মো. শাহিরয়ার আলম। কারণ হিসেবে তিনি বলেছেন, সরকার দেশটির সঙ্গে যোগাযোগ বাড়িয়েছে।

রবিবার ঢাকায় পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ে নিজ দপ্তরে সাংবাদিকদের সঙ্গে আলাপকালে তিনি এ কথা জানান।

প্রতিমন্ত্রী শাহিরয়ার আলম বলেন, ‘আমরা প্রত্যাশা করছি, মার্কিন প্রশাসন নতুন করে নিষেধাজ্ঞা দেবে না।

আমরা মনে করি, সম্প্রতি কোনো নিষেধাজ্ঞা আসবে না। কারণ আমরা এনগেজমেন্ট বাড়িয়েছি। যে তথ্য তারা (যুক্তরাষ্ট্র) চাচ্ছিল, সেটা যতটুকু সম্ভব দেওয়ার চেষ্টা করেছি। আমরা অব্যাহতভাবে মার্কিন প্রশাসনের সঙ্গে এনগেজমেন্টে আছি। ’

সম্প্রতি কুমিল্লায় সমাবেশ থেকে বিএনপির সংসদ সদস্য রুমিন ফারহানা পুলিশের উদ্দেশে বলেন, ‘র‌্যাব আমাদের ভাইদের গুলি করছে। তাদের আমেরিকা নিষিদ্ধ করেছে। আপনারা গুলি করবেন না, তাহলে আপনাদেরও নিষিদ্ধ করবে। ’

বিএনপির এই নেতার বক্তব্যের বিষয়ে প্রতিমন্ত্রী বলেন, ‘বিএনপির একজন নেতা বলেছেন, নতুন করে আরো নিষেধাজ্ঞা আসবে। এটা দুঃখজনক। আমার কাছে মনে হয়, ১০ ডিসেম্বর তাঁরা জনসভা নির্ধারণ করেছেন তাঁদের লবিস্টের কথায়। সমন্বিত একটা পরিকল্পনা ও সিদ্ধান্ত হিসেবে তাঁরা ১০ ডিসেম্বর বেছে নিয়েছেন। ’

প্রতিমন্ত্রী বলেন, ‘গত বছর ১০ ডিসেম্বর মার্কিন প্রশাসন থেকে নিষেধাজ্ঞা এসেছে। বিএনপির লবিস্টরা বলেছেন, ১০ ডিসেম্বরের মধ্যে আমরা তোমাদের আরো নিষেধাজ্ঞা আদায় করে দেব। ওই দিন তোমরা রাজনৈতিক সভা করো। তাহলে তোমাদের লাভ হবে। কিন্তু আমার মনে হয় তাঁদের প্রচেষ্টা এবারও ব্যর্থ হবে। ’

র‌্যাবের নিষেধাজ্ঞা তোলার বিষয়ে শাহিরয়ার আলম বলেন, ‘নিষেধাজ্ঞা তুলে নেওয়ার বিষয়টি দীর্ঘ প্রক্রিয়া। সে জায়গায় আইনি প্রক্রিয়াই একমাত্র পন্থা। এ জন্য যে তথ্যগুলো দরকার, মোটামুটি যে তথ্যটা পেলে পরবর্তী পদক্ষেপে কেস ফাইল করতে পারব, সেটা আমরা অতি সম্প্রতি পেয়েছি। কার বিরুদ্ধে কী অভিযোগের ভিত্তিতে তারা এ কাজটি করল, সে তথ্যগুলো আমরা এক বছর পর পেলাম। ’

র‌্যাবের নিষেধাজ্ঞা তোলার বিষয়ে সরকার আইনি প্রক্রিয়ার পাশাপাশি কূটনৈতিক প্রচেষ্টা অব্যাহত রাখবে বলেও জানান প্রতিমন্ত্রী।

সম্প্রতি ঢাকায় মার্কিন রাষ্ট্রদূতের সঙ্গে বৈঠক করেন পররাষ্ট্র প্রতিমন্ত্রী ও পররাষ্ট্রসচিব মাসুদ বিন মোমেন। সেখানে আলোচনার বিষয়ে জানতে চাইলে প্রতিমন্ত্রী বলেন, ‘আমরা অব্যাহত এনগেজমেন্টের অংশ হিসেবে রাষ্ট্রদূতের সঙ্গে বৈঠক করেছি। এটা ক্লোজডোর মিটিং ছিল। সেখানে কী আলাপ হয়েছে বলব না। ’

র‌্যাবকে নতুন করে সাজানোর বিষয়ে সরকার ভাবছে কি না—এমন প্রশ্নের জবাবে শাহিরয়ার আলম বলেন, ‘সব কিছুতে সংস্কারের প্রয়োজন আছে। সংস্কারটা আমরা আমাদের স্বার্থেই করি। র‌্যাবকে বিএনপি-জামায়াত কালচার থেকে আওয়ামী লীগ সরকার ফেরত নিয়ে এসেছে। ’