সুরুচি ও অসাম্প্রদায়িক বাংলাদেশ গঠনের আহ্বান

4

সম্প্রতি কুষ্টিয়ার দৌলতপুরে লালন অনুসারী সাধুসঙ্গের উপর লাউবাড়িয়া উত্তর পাড়ার জামে মসজিদের সভাপতির নেতৃত্বে পরিচালিত উগ্র ধর্মান্ধদের লালন সাধুসঙ্গে হামলায় নব্বইবছরের অশীতিপর সাধক মদন ফকির সহ সাতজন লালন অনুসারী আহত হয়েছেন। বিশিষ্ট বুদ্ধিজীবীরা এ ঘটনার তীব্র নিন্দা জানাই ও সন্ত্রাসী হামলায় জড়িত সকল দায়ী ব্যক্তিদের আশু গ্রেফতার ও দ্রুত বিচার দাবী করেন।স্থানীয় প্রশাসনকে ক্ষতিগ্রস্থ লালন অনুসারীদের সুচিকিৎসা ও ক্ষতিগ্রস্থ ঘরবাড়ি জরুরি ভিত্তিতে পুন:নির্মানের আহ্বান জাচ্ছি।
দ্বিতীয় বিষয়টি রীতিমতো অবিশ্বাস্য। খ্যাতনামালেখক সাংবাদিক আনিসুল হকের লেখা উদ্ধৃত করে যে কুরুচিপূর্ণ ও উদ্দেশ্যে প্রণোদিত প্রশ্ন
উচ্চমাধ্যমিক পরীক্ষার প্রশ্নপত্রে করা হয়েছে,তা নজিরবিহীন।
আরো উল্লেখ্য যে সাম্প্রদায়িক অপচেতনার ভিত্তিতে আরো একটি প্রশ্নপত্র সরাসরি সাম্প্রদায়িক উসকানি মূলক।আমরা ভেবে অবাক হই যে কি ভাবে মুক্তিযুদ্ধের বাংলাদেশের শিক্ষা বোর্ডের প্রশ্নপত্রে এ ধরণের প্রশ্ন করা হয়।আমরা শিক্ষার এই অধগামিতা দেখে হতাশ ও ক্ষুব্ধ।এ ধরণের কুরুচিপূর্ণ ও সাম্প্রদায়িক অপচেতনা আমাদের শিক্ষা ব্যবস্থার অসারতা প্রমান করে।এ সকল অপকর্মের দ্রুত তদন্ত ও শাস্তিমূলক ব্যবস্থার দাবী করছি।
মুক্তিযুদ্ধের বাংলাদেশ অসাম্প্রদায়িক ও সুরুচির মানবিক সমাজ গঠনে অঙ্গীরাবদ্ধ।
তারা আরো বলেন, উল্লেখিত বিষয়গুলো কর্যত বাংলাদেশের সমাজিক,সাংস্কৃতিক ও শিক্ষার ক্ষেত্রে বিরাজমান অব্যবস্থার চিত্র।এখনি এই ধ্বস রোধ করতে হবে।
তাই সরকারের প্রতি তারা আহ্বান জানান যথাশীঘ্র সমাজ ও শিক্ষা ক্ষেত্রে শৃঙ্খলা ফিরিয়ে আনার আশু পদক্ষেপ গ্রহণ করতে হবে।
বিবৃতি দাতা-

নাসির উদ্দীন ইউসুফ।

১)হসান ইমাম। ২)অনুপম সেন।
৩)সারওযার আলী।৪)রামেন্দু মজুমদার। ৫) সেলিনা হোসেন।
৬)আবেদ খান।৮) মফিদুল হক।
৯)শফি আহমেদ। ১০) মুনতাসীর মামুন।১০)শাহরিয়ার কবীর।
১১) নাসির উদ্দীন ইউসুফ।
১২) মুহাম্মদ সামাদ।১৩) গোলাম কুদ্দুছ। ১৪) কাজী ১৫) আহকাম উল্লাহ