’৭১-এর জেনোসাইডের জাতিসংঘ স্বীকৃতির দাবিতে দীর্ঘমেয়াদী সমন্বিত উদ্যোগ গ্রহণের পরামর্শ

13

 

ভিনিউজ ডেস্ক: পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের সিনিয়র সচিব মাসুদ বিন মোমেন ১৯৭১ সালে পাকিস্তান সেনাবাহিনী কর্তৃক বাংলাদেশে সংঘটিত জেনোসাইডের আন্তর্জাতিক ও জাতিসংঘ স্বীকৃতির দাবিতে জোরালো ও দীর্ঘমেয়াদী সমন্বিত উদ্যোগ গ্রহণের পরামর্শ দিয়েছেন। মুক্তিযুদ্ধের চেতনায় প্রবাহমান সংগঠন আমরা ’৭১-এর নেতৃবৃন্দের সাথে এক বৈঠকে তিনি এ পরামর্শ দেন। পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের সচিবের দপ্তরে আজ এ বৈঠক অনুষ্ঠিত হয়।
আমরা ’৭১ চেয়ারপারসন বীর মুক্তিযোদ্ধা মাহবুব জামান, প্রধান সমন্বয়কারী বীর মুক্তিযোদ্ধা ও রম্য লেখক হিলাল ফয়েজী, কেন্দ্রীয় সংগঠক বীর মুক্তিযোদ্ধা মৃণাল সরকার ও বাংলাদেশ সংবাদ সংস্থা (বাসস)’র বিশেষ প্রতিনিধি মাহফুজা জেসমিন এসময় উপস্থিত ছিলেন।
পররাষ্ট্র সচিব বলেন, একাত্তরে সংঘটিত বাংলাদেশ জেনোসাইডের জাতিসংঘের স্বীকৃতির পথে অনেক প্রতিবন্ধকতা রয়েছে। এসব প্রতিবন্ধকতা দূর করতে দীর্ঘমেয়াদি ও সমন্বিত পরিকল্পনা ও উদ্যোগ গ্রহণ করতে হবে। তিনি এ দাবি আদায়ে সরকারি উদ্যোগের পাশাপাশি সামাজিক সংগঠনগুলোর সম্পৃক্ততার ওপর গুরুত্বারোপ করেন।
মাসুদ বিন মোমেন বলেন, আন্তর্জাতিক যোগাযোগ বৃদ্ধি, প্রবাসে বাংলাদেশী সংগঠনগুলোর নিয়মিত কর্মসূচি গ্রহণ, দেশ-বিদেশের বিভিন্ন বিশ্ববিদ্যালয়ে বাংলাদেশ জেনোসাইডের ওপর গবেষণাপত্র তৈরি ও প্রচার, জাতীয় ও আন্তর্জাতিক অঙ্গনে জনমত তৈরিতে নিয়মিত কর্মউদ্যোগ গ্রহণ ও গণমাধ্যমের জোরালো ভূমিকা এ দাবি আদায়ে অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ।
আমরা ’৭১-এর চেয়ারপারসন মাহবুব জামান ১৯৭১ সালের জেনোসাইডের স্বীকৃতির দাবিতে সংগঠনের বিভিন্ন কর্মসূচি তুলে ধরেন। সাংগঠনিক বিভিন্ন কর্মকান্ড ছাড়াও তিনি পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের এ সংক্রান্ত কর্মকান্ডে আমরা ’৭১-এর সহযোগী ভূমিকা রাখবে বলে আশাবাদ ব্যক্ত করেন।
জাতিসংঘ মানবাধিকার কাউন্সিলের ৫১তম অধিবেশনে বাংলাদেশ মানবাধিকার কাউন্সিলের সদস্য হিসেবে নির্বাচিত হওয়ায় মাহবুব জামান আমরা ’৭১-এর পক্ষ থেকে পররাষ্ট্র সচিবকে অভিনন্দন ও ধন্যবাদ জানান। আলোচনা শেষে তিনি পররাষ্ট্র সচিবের হাতে অভিনন্দন পত্রটি হস্তান্তর করেন।