সংসদের ২০তম অধিবেশন চলবে ৬ নভেম্বর পর্যন্ত

33

স্পিকার ড. শিরীন শারমিন চৌধুরীর সভাপতিত্বে করোনাকালীন স্বাস্থ্যবিধি মেনে রবিবার বিকাল সাড়ে ৪টায় শুরু হয়েছে একাদশ জাতীয় সংসদের ২০তম অধিবেশন। অধিবেশন চলবে আগামী ৬ নভেম্বর রবিবার পর্যন্ত। শুক্র ও শনিবার ব্যতীত প্রতিদিন বিকাল সাড়ে ৪টায় অধিবেশন বসবে। রবিবার বিকাল ৩ টায় অনুষ্ঠিত সংসদের কার্যউপদেষ্টা কমিটির ১০ম বৈঠকে এসব সিদ্ধান্ত হয়। 

অধিবেশনের শুরতে সংসদের সভাপতি মন্ডলীর মনোনয়নের পর শোক প্রস্তাব আনা হয়। চলতি সংসদের উপনেতা আওয়ামী লীগের সভাপতিমন্ডলীর সদস্য সৈয়দা সাজেদা চৌধুরী ও শেখ এ্যানী রহমান এমপির ওপর আলোচনা অনুষ্ঠিত হয়। পরে এক মিনিট নীরবতা পালন শেষে মরহুমদের আত্মার মাগফিরাত কামনা করে মোনাজাত করা হয় এবং রেওয়াজ অনুযায়ী সন্ধ্যা সাড়ে ছয়টায় অধিবেশন তুলতবী করা হয়।

এরআগে স্পিকার ড. শিরীন শারমিন চৌধুরীর সভাপতিত্বে সংসদের কার্যউপদেষ্টা কমিটির ১০ম বৈঠক অনুষ্ঠিত হয়। বৈঠকে কমিটির সদস্য, সংসদ নেতা ও প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনাবৈঠকে অংশগ্রহণ করেন। এছাড়া কমিটির সদস্য আওয়ামী লীগের প্রবীণ নেতা জেষ্ঠ্য পার্লামেন্টারিয়ান আমির হোসেন আমু, শেখ ফজলুল করিম সেলিম, আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক এবং সড়ক ও সেতু মন্ত্রী ওবায়দুল কাদের, জাতীয় সমাজতান্ত্রিক দল জাসদের সভাপতি হাসানুল হক ইনু, ডেপুটি স্পিকার মোঃ শামসুল হক টুকু, আইনমন্ত্রী আনিসুল হক, বিরোধী দলীয় উপনেতা ও জাতীয় পার্টির চেয়ারম্যান গোলাম মোহাম্মদ কাদের, জাতীয় পার্টির আনিসুল ইসলাম মাহমুদ, সংসদের চিফ হুইপ নূর-ই-আলম চৌধুরী ও আওয়ামী লীগের আবদুস সাত্তার ভুঞা বৈঠকে অংশ নেন।

সংসদের গণসংযোগ বিভাগ জানায়, বৈঠকে এই অধিবেশনে উত্থাপনের জন্য ১,০৪৭টি প্রশ্ন পাওয়া গেছে। এরমধ্যে প্রধানমন্ত্রীর জন্য ৪৪টি ও অন্যান্য মন্ত্রীর জন্য ১০০৩টি প্রশ্ন রয়েছে। এছাড়া বিধি-৭১ এ মনোযোগ আকর্ষণের নোটিশ পাওয়া গেছে ৩৫টি। বৈঠকে জানানো হয়, গত ৩০ অক্টোবর  পর্যন্ত  ৫টি সরকারি বিল ও গত অধিবেশনে অনিষ্পন্ন ১২টি বিলসহ ১৭টি বিলের মধ্যে কমিটিতে পরীক্ষাধীন ৮টি, পাসের অপেক্ষায় ২টি ও উত্থাপনের অপেক্ষায় ৭টি। অনিষ্পন্ন ১০টি বেসরকারি বিলের মধ্যে গত সপ্তদশ অধিবেশনে ১টি বিল উত্থাপিত হয়েছে। বিলটি কমিটিতে পরীক্ষাধীন রয়েছে। 

কোভিড-১৯ টেস্টে নেগেটিভ সনদধারী সংসদ সদস্য, সংসদ সচিবালয়ের কর্মকর্তা-কর্মচারিরা সংসদের অধিবেশনে যোগ দেন। নেগেটিভ সনদধারী বিভিন্ন সংবাদপত্র ও গণমাধ্যমের সাংবাদিকেরাও স্বশরীরের অধিবেশন কভার করেন।