হামলা জোরালো করতে অস্ত্র উৎপাদন বাড়ানোর তাগিদ পুতিনের

15

চলতি বছরের ২৪ ফেব্রুয়ারি থেকে ইউক্রেনে হামলা চালিয়ে আসছে রাশিয়া। এরই মধ্যে আট মাস পেরিয়ে গেছে। ইউক্রেনীয় বাহিনী তাদের ভূখণ্ডের অনেক স্থানে শক্তভাবে প্রতিরোধ গড়ে তুলেছে। বহু স্থানে সামরিক সরঞ্জাম হারিয়েছে রুশ সেনারা।

বিবিসি জানিয়েছে, সামরিক সরঞ্জাম পর্যাপ্ত না থাকায় বহু স্থানে জোরালো প্রতিরোধ গড়ে তুলতে পারেনি রুশ সেনারা। ফলে কিছু স্থানে পিছু হটতে বাধ্য হয়েছে তারা।

যুদ্ধের গতি ধরে রাখতে অস্ত্র-সরঞ্জাম উৎপাদন বাড়ানো ও সেগুলো স্বল্প সময়ের মধ্যে ইউক্রেনে রুশ সেনাদের হাতে পৌঁছে দেওয়ার নির্দেশ দিয়েছেন প্রেসিডেন্ট ভ্লাদিমির পুতিন।

আলজাজিরা জানিয়েছে, সামরিক সরঞ্জামের উৎপাদন বাড়ানো এবং যুদ্ধক্ষেত্রে রুশ সেনাদের হাতে সেসব পৌঁছে দেওয়ার পরিকল্পনা বাস্তবায়নের জন্য উচ্চপর্যায়ের একটি কমিটিও গঠন করেছেন রুশ প্রেসিডেন্ট। মঙ্গলবার সেই কমিটির বৈঠক ছিল। বৈঠকে সভাপতিত্ব করেছেন ভ্লাদিমির পুতিন।

বৈঠকে ইউক্রেনের সব এলাকায় যুদ্ধের গতি বাড়ানোর ওপর জোর দিয়েছেন পুতিন। এদিকে পারমাণবিক অস্ত্র ব্যবহারের দায়িত্বে থাকা বাহিনীর বার্ষিক মহড়াও পর্যবেক্ষণ করেছেন তিনি। রুশ প্রতিরক্ষা দপ্তর ক্রেমলিন গতকাল বুধবার এক বিবৃতিতে এ তথ্য জানিয়েছে।

ক্রেমলিনের ওই বিবৃতিতে বলা হয়েছে, সশস্ত্র বাহিনীর সুপ্রিম কমান্ডার ইন চিফ ভ্লাদিমির পুতিনের নেতৃত্বের আওতায় স্থল, নৌ ও আকাশপথে কৌশলগত পারমাণবিক অস্ত্র ব্যবহারের দায়িত্বে থাকা বাহিনীগুলোর মহড়া অনুষ্ঠিত হয়েছে। মহড়ায় ব্যালিস্টিক ও ক্রুজ ক্ষেপণাস্ত্র উৎক্ষেপণ করা হয়েছে। আর্কটিক অঞ্চলে এ মহড়া চলছে।
সূত্র: বিবিসি, আলজাজিরা।