উৎসবমুখর পরিবেশে দেশে আজ ৩২হাজার মণ্ডবে দুর্গাপূজা শুরু হচ্ছে

18

 

তানজিনা হাসান মৌ –

দেশে প্রায় ৩২ হাজার দূর্গা পূজা মণ্ডবে আজ সন্ধ্যায় দেবীর বোধনের মাধ্যমে উৎসবমুথব পরিষদ শুরু হচ্ছে শারদীয় দূর্গোৎসব । পঞ্জিকা মতে ৫ অক্টোবর বিজয়া দশমীতে প্রতিমা বিসর্জনের মধ্যদিয়ে শেষ হবে পাঁচদিনব্যাপি এ উৎসব। ঢাকেশ্বরী , রমনা কালী মন্দির সহ দেশের প্রতিটি জেলায় মণ্ডবে মণ্ডবে চলছে শেষ সময়ের প্রস্তুতি । প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার সরকার জেলা প্রশাসকের মাধ্যমে প্রতিটি দূর্গা মণ্ডবে শুভেচ্ছা ও অর্থিক সহোয়োগিতা পৌছে দিচ্ছে ।

এদিকে পূজাকে আনন্দমুখর করে তুলতে দেশজুড়ে বর্ণাঢ্য প্রস্তুতি ইতোমধ্যেই শেষ হয়েছে। সারাদেশে এখন বইছে উৎসবের আমেজ। ঢাক-ঢোল কাঁসা এবং শঙ্খের আওয়াজে মুখরিত হয়ে উঠেছে এ বাংলার পরিবেশ ।রাজনৈতিক নেতারা নিজস্ব এলাকায় ছুটছেন শারদীয় উৎসবে শামিল হতে।
ঢাকা রামকৃষ্ণ মিশনের নির্ঘন্টে বলা হয়েছে, শনিবার সকাল ৭টা ৩০ মিনিটে সায়াংকালে কল্পারম্ভ এবং বোধন আমন্ত্রণ ও অধিবাসের মধ্যদিয়ে উৎসবের প্রথম দিন ষষ্ঠী পূজা সম্পন্ন হবে। এদিন সকাল থেকে চন্ডিপাঠে মুখরিত থাকবে সকল মণ্ডপ এলাকা।

ঢাকেশ্বরী মন্দরের পুরোহিত জানিয়েছেন মন্দিরে সোমবার মহাসপ্তমীর পূজা অনুষ্ঠিত হবে সকাল ৬টা ৩০মিনিটে। সোমবার মহাঅষ্টমীর পূজা অনুষ্ঠিত হবে সকাল ৯টা ৩০ মিনিটে এবং বেলা ১১টায় অনুষ্ঠিত হবে কুমারী পূজা। সন্ধিপূজা শুরু হবে বিকাল ৪ টা ৪৪ মিনিটে এবং সমাপন বিকাল ৫টা ৩২ মিনিটের মধ্যে। মঙ্গলবার সকাল ৬টা ৩০ মিনিটে শুরু হবে নবমী পূজা। পুস্পাঞ্জলি সকাল ১০টা ৩০ মিনিটে। পরদিন বুধবার সকাল ৬ টা ৩০ মিনিটে দশমী পূজা আরম্ভ, পুস্পাঞ্জলি সকাল ৮টায় এবং পূজা সমাপন ও দর্পণ বিসর্জন হবে সকাল ৮টা ৫০ মিনিটের মধ্যে। সন্ধ্যা-আরাত্রিকের পর প্রতিমা বিসর্জন ও শান্তিজল গ্রহনের মধ্যদিয়ে শেষ হবে পাঁচদিনব্যাপি এ উৎসবের।

বাংলাদেশ পূজা উদযাপন পরিষদের সাধারণ সম্পাদক অধ্যাপক চন্দ্রনাথ পোদ্দার আজকালকে বলেন, সারাদেশে এবছর ৩২ হাজার ১৬৮টি মণ্ডবে দুর্গাপূজা উদযাপন হবে। গত বছর সারাদেশে দুর্গাপূজার সংখ্যা ছিল ৩২ হাজার ১১৮টি। এবার এ সংখ্যা বেড়ে দাঁড়িয়েছে ৩২ হাজার ১৬৮টিতে। ঢাকা মহানগরে পূজার সংখ্যা ২৪১টি, যা গত বছরের থেকে ৬টি বেশি।
দুর্গাপূজা উপলক্ষে রাজধানী ঢাকাসহ সারাদেশের প্রতিটি পূজা মণ্ডবের নিরাপত্তা রক্ষায় পুলিশ, আনসার, বিজিবি অন্যান্য আইন-শৃংখলা বাহিনীর সদস্যরা দায়িত্ব পালন করবেন। পুলিশের পাশাপাশি প্রায় প্রতিটি মন্ডপে স্বেচ্ছাসেবক বাহিনী দায়িত্ব পালন করবে। ঢাকেশ্বরী মন্দির মেলাঙ্গনে মহানগর সার্বজনীন পূজা কমিটির উদ্যোগে কেন্দ্রীয় নিয়ন্ত্রণ কক্ষ খোলা হয়েছে।

রাজধানীতে কেন্দ্রীয় পূজা উৎসব হিসেবে পরিচিত ঢাকেশ্বরী জাতীয় মন্দির মণ্ডবে পূজার পাশাপাশি ভক্তিমূলক সঙ্গীতানুষ্ঠান, বস্ত্র বিতরণ, মহাপ্রসাদ বিতরণ, আরতি প্রতিযোগিতা, স্বেচ্ছা রক্তদান ও বিজয়া শোভাযাত্রা অনুষ্ঠিত হবে।

বাংলাদেশ পূজা উদযাপন পরিষদের সভাপতি জে এল ভৌমিক বলেন,
‘গত বছরের ঘটনার প্রেক্ষাপটে এ বছর সরকার চাচ্ছে, কোনো অবস্থাতেই যেন কোনো অঘটন না ঘটে। আইন প্রয়োগকারী সংস্থাগুলো গত বছরের তুলনায় এবার অনেক বেশি সক্রিয়। আমাদের ৩২ হাজার ১৬৮টি মন্দিরের সুরক্ষা দেওয়ার জন্য আমরা এ বছর প্রত্যেক মন্দিরে স্বেচ্ছাসেবক নিয়োগ করছি, যারা রাতেও পাহারা দেবে।’

রাজধানী ঢাকায় রামকৃষ্ণ মিশন ও মঠ পূজামণ্ডবে , গুলশান বনানী সর্বজনীন পূজা ফাউন্ডেশন, রমনা কালীমন্দির ও আনন্দময়ী আশ্রম, বরোদেশ্বরী কালীমাতা মন্দির ও শ্মশান কমিটি, সিদ্ধেশ্বরী কালিমাতা, ভোলানাথ মন্দির আশ্রম, জগন্নাথ হল, ঋষিপাড়া গৌতম মন্দির, বাসাবো বালুর মাঠ, শাঁখারী বাজারের পানিটোলা মন্দিরসহ অন্যান্য মন্ডপে দুর্গোৎসবের ব্যাপক প্র্স্তুতি শেষ হয়েছে।

রাজশাহী মহানগরে ৭৬টি ও জেলায় ৩৪১ পূজা মণ্ডবে দূর্গা পূজার প্রস্ততি শেষ হয়েছে। থুলনা শহর সেজেছে শারদীয় দূর্গোৎসবে। এ বছর সিলেট বিভাগে প্রায় ২৫০০ মণ্ডপে দূর্গা পূজার আয়োজন করা হচ্ছে বলে জানিয়েছে সিলেট বিভাগীয় পূজা উদযাপন পরিষদ। সিলেট শহরে ৪৫টি মণ্ডপসহ জেলায় থাকছে ৬০০ দূর্গা মণ্ডপ, যার প্রত্যেকটিতেই প্রস্তুতি শেষ । চট্টগ্রাম মহানগরী এবং জেলায় এবার ২ হাজার ২৪১টি মন্ডপে শারদীয় দুর্গাপূজার আয়োজন করা হয়েছে। আজ সোমবার সন্ধ্যায় দেবীর বোধনের মধ্যদিয়ে পূজার আনুষ্ঠানিকতা শুরু হবে। পূজা উদযাপন পরিষদের নেতারা জানান, বিভাগে সব ধরনের প্রস্তুতি সম্পন্ন হয়েছে। ছোট্ট শহর গোপালগঞ্জে আজ বোধনের মধ্য দিয়ে ১৩টি মণ্ডবে শুরু হবে শারদীয় দূর্গা পূজা ।

দূর্গোৎসব উপলক্ষে বাংলাদেশ পূজা উদযাপন পরিষদ, মহানগর সার্বজনীন পূজা উদযাপন কমিটির নেতৃবৃন্দ হিন্দু সম্প্রদায়সহ ধর্ম-বর্ণ নির্বিশেষে দেশের সকল নাগরিককে শারদীয় দুর্গাপূজার শুভেচ্ছা জানিয়েছেন।