হিন্দু মহাজোটের সম্মেলনে জি এম কাদের : আওয়ামী লীগের সঙ্গে জোটে নেই জাতীয় পার্টির

 

ভিনিউজ – জাতীয় পার্টির চেয়ারম্যান ও বিরোধী দলীয় উপনেতা জি এম কাদের বলেছেন, ‘জাতীয় পার্টি কোনো জোটে নেই। গত নির্বাচনেও আওয়ামী লীগের সঙ্গে জাতীয় পার্টির জোট ছিল না। কিছু আসনে নির্বাচনী সমঝোতা হয়েছিল। তখন আমাদের নেতাকর্মীরা আসনভিত্তিক আওয়ামী লীগের পক্ষে কাজ করেছেন। আবার আওয়ামী লীগের নেতাকর্মীরাও জাতীয় পার্টির পক্ষে কাজ করেছে। এ কারণে আওয়ামী লীগের সঙ্গে আমাদের একটা বন্ধুত্বপূর্ণ সম্পর্ক আছে।’

আজ শুক্রবার দুপুরে রাজধানীর মহানগর নাট্যমঞ্চে হিন্দু মহাজোটের প্রতিনিধি সম্মেলনে প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এ কথা বলেন। জি এম কাদের বলেন, ‘আমরা দেশ ও মানুষের পক্ষে কথা বলতে চাই। আমরা সত্য কথা বলতে চাই। ভালো কাজ করলে আমরা আওয়ামী লীগের সঙ্গে থাকতে পারি। কিন্তু আওয়ামী লীগ যদি গণমানুষের আস্থা হারিয়ে ফেলে তাহলে আগামীতে আমরা তাদের সঙ্গে নাও থাকতে পারি।’

বিরোধী দলীয় উপনেতা বলেন, ‘দেশের মানুষ নির্বাচনে ইভিএম চায় না। আমরা শুরু থেকেই ইভিএমের বিপক্ষে। কারণ ইভিএম হচ্ছে শান্তিপূর্ণ কারচুপির মেশিন। ইভিএমে নির্বাচন হলে যাকে খুশি বিজয়ী করতে পারবে। আমরা নির্বাচন বর্জনের ঘোষণা দিইনি। নির্বাচন বর্জনের ঘোষণা অত্যন্ত কঠিন। আমরা বাস্তব অবস্থা পর্যবেক্ষণ করে সিদ্ধান্ত নেব।’

এ সময় দেশের সংখ্যালঘু সম্প্রদায়ের সবাইকে ঐক্যবদ্ধ হবার আহ্বান জানিয়ে তিনি বলেন, ‘সংখ্যালঘুদের মধ্যে যারা রাজনীতি করে অথবা বিত্তশালী তারা কোনোমতে ভালো আছে। কিন্ত গ্রামাঞ্চলের হতদরিদ্র সংখ্যালঘুরা জানমাল ও সম্মান নিয়ে নিরাপত্তাহীনতায় আছে। প্রভাবশালীদের নির্যাতনের শিকার হচ্ছে তারা। জাতীয় পার্টির দরজা তাদের জন্য সব সময় খোলা। তাদের স্বার্থ রক্ষায় জাতীয় পার্টি সংসদে ও রাজপথে থাকবে।’

অ্যাডভোকেট দীনবন্ধু রায়ের সভাপতিত্বে ও প্রিয়াংকা সুকুলের সঞ্চালনায় সম্মেলনে বিশেষ অতিথি ছিলেন জাপার কো-চেয়ারম্যান ও সংসদ সদস্য সৈয়দ আবু হোসেন বাবলা, প্রেসিডিয়াম সদস্য সুনীল শুভ রায়, জাতীয় হিন্দু মহাজোটের সভাপতি বিধান বিহারী গোস্বামী, মহাসচিব অ্যাডভোকেট গোবিন্দ চন্দ্র প্রামাণিক, সাংগঠনিক সম্পাদক সুশান্ত কুমার চক্রবর্তী এবং জাপার যুগ্ম সাংগঠনিক সম্পাদক সুজন দে।