প্রধানমন্ত্রীর মতামত নিয়ে বঙ্গবন্ধু বায়োপিকের স্ক্রিপ্ট চূড়ান্ত করবেন শ্যাম বেনেগাল

বিখ্যাত ভারতীয় চলচ্চিত্র নির্মাতা শ্যাম বেনেগাল বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানকে নিয়ে যে বায়োপিক বানাচ্ছেন তার সংক্ষিপ্তসার শোনাবেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনাকে আগামী রবিবার সকালে এবং তারপরই চূড়ান্ত হবে এই বায়োপিকের স্ক্রিপ্ট।

শ্যাম বেনেগাল মুম্বাই থেকে ফোনে বলেন, রবিবার সকালে আমাকে দুই ঘণ্টা সময় দেওয়া হয়েছে। আমি বঙ্গবন্ধুকে নিয়ে যে রিসার্চ করেছি তার ভিত্তিতে একটি সংক্ষিপ্তসার তৈরি করেছি। তা আমি আপনাদের প্রধানমন্ত্রীকে শোনাবো এবং তাঁর মতামতের ভিত্তিতে আমি এই সিনেমার স্ক্রিপ্ট চূড়ান্ত করব।

আজ বৃহস্পতিবার সকালে তিন দিনের ভারত সফরে দিল্লি পৌঁছান প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। আগামী তিন দিন অনেক গুরুত্বপূর্ণ মিটিং নির্ধারিত রয়েছে প্রধানমন্ত্রীর। কিন্তু বেনেগালের সাথে এই মিটিং এর তাৎপর্য আলাদা।

বেনেগালের মতে বঙ্গবন্ধুকে নিয়ে বায়োপিকের স্ক্রিপ্ট কন্যা শেখ হাসিনার মতামত ছাড়া কখনোই পূর্ণতা পাবে না। আর তাই এই মিটিংয়ের আয়োজন করা হয়েছে।

বাংলাদেশ সরকারের সহায়তায় বঙ্গবন্ধুর জীবন এবং কর্মকাণ্ড নিয়ে তৈরি হতে যাচ্ছে এক বায়োপিক, যা হতে চলেছে বাংলাদেশ স্বাধীনতার ৫০ বছর এবং বঙ্গবন্ধুর জন্মের শতবর্ষ উদযাপন এর মুখ্য আকর্ষণ।

দাদা সাহেব ফালকে সম্মাননা প্রাপক চলচ্চিত্র নির্মাতা বেনেগাল বলেন, সকাল ৯টা থেকে ১১টা ওই মিটিংয়ের পরে স্ক্রিপ্ট চূড়ান্ত হবে। আর তারপরে আমি সিনেমার কাস্টিং নির্ধারণ করব। আমাদের হাতে বেশি সময় নেই। কারণ ২০২১ সালের মধ্যে এই বায়োপিক তৈরি করতে হবে।

প্রবীণ এই চলচ্চিত্র নির্মাতা আগে নেতাজি সুভাষচন্দ্র বোসকে নিয়ে বায়োপিক বানিয়েছেন।

বেনেগাল বলেন, স্ক্রিপ্ট চূড়ান্ত করার সাথে সাথেই সিনেমার শুটিং চালু হবে। তবে আমি শুটিং শুরু হবার আগে কয়েকবার বাংলাদেশ যাব।

বোম্বে ফিল্ম ইন্ডাস্ট্রির কিছু সূত্র জানিয়েছে, বেনেগাল ইতিমধ্যে মোটামুটি একটা কাস্টিংয়ের পরিকল্পনা করে ফেলেছেন। কিন্তু তিনি এখন কাউকে বলছেন না। বাংলাদেশের প্রধানমন্ত্রীর সম্মতি না পাওয়া অবদি তিনি মুখ খুলবেন না মনে হয়। রবিবার মিটিং এর পর হয়তো অনেক কিছু জানা যাবে।

শুধু বাংলাদেশের মানুষই নয়, ভারতের সাধারণ মানুষ ও বঙ্গবন্ধুর ওপর এই বায়োপিকের জন্য তীর আগ্রহে অপেক্ষা করছেন।