৭ কলেজের সংকট: নির্ধারিত সময়ের আগেই শুরু হলো জরুরি সভা

28
Social Share

ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় অধিভুক্ত ৭ কলেজের শিক্ষার্থীদের আন্দোলন ও দাবির বিষয়ে আজ বুধবার (২৪ ফেব্রুয়ারি)  সন্ধ্যা ৬টায় আহ্বান করা হয়েছিল শিক্ষা মন্ত্রণালয়ের জরুরি সভা। কিন্তু আন্দোলনরত শিক্ষার্থীরা রাস্তা না ছাড়ায় সংকট নিরসনে নির্ধারিত সময়ের আগেই জরুরি সভা শুরু হয়েছে।

ভার্চুয়ালি এ সভায় যুক্ত রয়েছেন শিক্ষামন্ত্রী ডা. দীপু মনি, শিক্ষা উপমন্ত্রী মহিবুল হাসান চৌধুরী নওফেল, মাধ্যমিক উচ্চ শিক্ষা বিভাগের সচিব মো. মাহবুব হোসেন, ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য, উপ-উপাচার্য এবং সাত কলেজের সমন্বয়কসহ কলেজের অধ্যক্ষরা।

এদিকে, পরীক্ষা স্থগিতের সিদ্ধান্ত বাতিলের দাবিতে আজ বুধবার (২৪ ফেব্রুয়ারি) দ্বিতীয় দিনের মত রাজধানীর নীলক্ষেত মোড় অবরোধ করে বিক্ষোভ করছেন সাত কলেজের শিক্ষার্থীরা। সকাল ৯টায় নীলক্ষেত মোড়ে অবস্থান নেন তাঁরা। এতে ওই সড়ক ও এর আশপাশের রাস্তায় যান চলাচল বন্ধ হয়ে যায়।

শিক্ষার্থীরা বলছেন, তাঁদের দাবি একটাই চলমান পরীক্ষার ওপর স্থগিতাদেশ প্রত্যাহার করে পরীক্ষা নিতে হবে।

আন্দোলরত ঢাকা কলেজের তৃতীয় বর্ষের শিক্ষার্থী জুনায়েদ সিদ্দিকী বলেন, ‘একদিকে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ে অধিভুক্ত হয়ে আমরা সেশনজটে পড়েছি। এর মধ্যে করোনা মহামারি আমাদের এক বছর পিছিয়ে দিয়েছে। সম্প্রতি পরীক্ষা শুরু হয়েছে এবং কোনো কোনো কলেজে তৃতীয় ও চতুর্থ বর্ষের পরীক্ষা চলছে, এর মধ্যেই আবার পরীক্ষা স্থগিতের সিদ্ধান্ত। আমরা এমন অবিবেচনাপূর্ণ সিদ্ধান্ত মানি না।’ তিনি বলেন, ‘হল-ক্যাম্পাস বন্ধ। পরীক্ষার কারণে আমরা মহামারির মধ্যে বাড়ি থেকে এসে মেসে উঠেছি। এমনিতেই অনেক সমস্যায় আছি। কিছুদিন পরপর এ ধরনের সিদ্ধান্ত নিলে আমরা অর্থনৈতিকভাবে আরো সমস্যায় পড়ব। কর্তৃপক্ষকে আমাদের বিষয়ে ভাবতে হবে।’

এর আগে গতকাল মঙ্গলবার (২৩ ফেব্রুয়ারি) সন্ধ্যায় নীলক্ষেত মোড়ে প্রথমে মানববন্ধন করেন শিক্ষার্থীরা। এরপর তাঁরা নীলক্ষেত মোড়ে অবস্থান নেন। রাত ১০টা পর্যন্ত তারা নীলক্ষেত মোড়ে অবস্থান নিয়েছিলেন। এ সময় পরীক্ষাগ্রহণের দাবিতে বিক্ষোভ প্রদর্শন করেন এবং স্লোগান দিতে থাকেন।

শিক্ষার্থীরা আজ বুধবার আবারো রাজধানীর বিভিন্ন পয়েন্টে অবস্থান নিয়ে বিক্ষোভ প্রদর্শন করছেন। ঢাকা কলেজের শিক্ষার্থী রাশেদুল ইসলাম বলেন, ‘আমাদের দুটি পরীক্ষা বাকি আছে। পরীক্ষার জন্য ঢাকায় অবস্থান করছি। এখন বলে পরীক্ষা স্থগিত। আমরা এটা মানি না।’

গতকাল সন্ধ্যায় ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় কর্তৃপক্ষের সঙ্গে সাত কলেজের অধ্যক্ষদের বৈঠক হয়। বৈঠকে পরীক্ষা স্থগিতের সিদ্ধান্ত হয়। এরপরই শিক্ষার্থীরা নীলক্ষেত মোড় অবরোধ করেন।