৩৫৫ মেয়ে শিক্ষার্থী পেল বাইসাইকেল, আত্মনির্ভরশীল হওয়ার আহ্বান

গোপালগঞ্জে কন্যা শিক্ষার্থীদের লেখাপাড়ায় মনোনিবেশ ও নিজেদেরকে আত্মনির্ভরশীল করে গড়ে তুলতে ৩৫৫টি বাইসাইকেল বিতরণ করেছেন জেলা প্রশাসক শাহিদা সুলতানা। ‘আপন আলো জ্বালো’ প্রতিপাদ্যে ‘আমি অদম্য, আমি সাহসী, আমি দিশারী, আমি স্বপ্নেভরা এক কিশোরী’ এই প্রতিপাদ্যকে সামনে রেখে কোমলমতি এসব মেয়ে শিক্ষার্থীদের হাতে বাইসাইকেল তুলে দেওয়া হয়। গোপালগঞ্জ সদর উপজেলার ২১টি ইউনিয়ন ও গোপালগঞ্জ পৌরসভার জনপ্রতিনিধিদের অর্থায়নে সদর উপজেলার ৩৫৫ মেয়ে শিক্ষার্থীদের মাঝে এসব বাইসাইকেল তুলে দেওয়া হয়।

আজ মঙ্গলবার দুপুর ১২টায় গোপালগঞ্জ সদর উপজেলা পরিষদ সংলগ্ন বধ্যভূমি চত্বরে এই অনুষ্ঠানের আয়োজন করা হয়। জেলা প্রশাসক শাহিদা সুলতানা প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত থেকে এসব বাইসাইকেল বিতরণ করেন।

জেলা প্রশাসক শাহিদা সুলতানা বলেন, জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের জন্মশতবার্ষিকী পালন উপলক্ষে জেলার সকল মাধ্যমিক স্কুলে কন্যা শিক্ষার্থীদের বাইসাইকেল দেওয়া হচ্ছে। এতে করে মেয়ে শিক্ষার্থীরা আপন আলোয় জ্বলে উঠবে। জেলার গ্রাম এলাকায় অনেক মেধাবী ও গরিব পরিবারের শিক্ষার্থী রয়েছে, যাদের বাড়ি স্কুল থেকে বেশ দূরে। যে কারণে তারা সঠিক সময়ে স্কুলে যেতে পারে না। তা ছাড়া গ্রামের মেয়েরা সাধরণত সাহসী না, যে কারণে তারা ইভটিজিংয়ের শিকার হয়ে থাকে। বাইসাইকেল বিতরণে শিক্ষার্থীরা সঠিক সময়ে স্কুলে আসতে পারবে, লেখাপড়ায় আরো মনোনিবেশ করতে পারবে। মেয়েরা আত্মনির্ভরশীল হবে। তিনি মাধ্যমিক স্কুলের শিক্ষার্থীদের কারাতে প্রশিক্ষণ গ্রহণ করে নিজেদের আত্মরক্ষার জন্য প্রস্তুত করে বখাটেদের বিরুদ্ধে রুখে দাঁড়ানোর আহ্বান জানান।