২০৩১ সালের মধ্যে চরম দারিদ্রের হার শূন্যের কোটায় নামিয়ে আনা হবে : পরিকল্পনামন্ত্রী

Social Share

 

পরিকল্পনামন্ত্রী এম.এ মান্নান বলেছেন, ২০৩১ সালের মধ্যে বাংলাদেশে চরম দারিদ্রের হার ১০ দশমিক ৫ শতাংশ থেকে শূন্যের কোটায় নামিয়ে আনা হবে।
জাতীয় সংসদে আজ সরকারি দলের সদস্য এম আবদুল লতিফের এক প্রশ্নের উত্তরে পরিকল্পনা মন্ত্রী সংসদকে এই তথ্য জানান।
এম.এ মান্নান আরো জানান, আমার বাড়ি আমার খামার প্রকল্প বাস্তবায়নের মাধ্যমে ১ লাখ ১ হাজার ৪২টি সমিতি গঠনের মাধ্যমে ৬০ লাখ দরিদ্র পরিবারকে এই প্রকল্পের আওতায় আনা হবে। এ সব পরিবারের সদস্যরা যাতে বিকল্প কর্মসংস্থান ও আয়ের মাধ্যমে চরম দারিদ্রতা থেকে মুক্তি লাভের উপায় খুঁজে পাবে বলে মন্ত্রী সংসদকে জানান।
মন্ত্রী আরো জানান, পল্লী অঞ্চলের অনগ্রসর জনগোষ্ঠীর দারিদ্র্য বিমোচনের লক্ষ্যে জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান সমাজ সেবা কার্যক্রম শুরু করেন। ৫ থেকে ৩০ হাজার টাকা পর্যন্ত সুদমুক্ত ঋণ কার্যক্রম চালু করা হয়। ৫০ ভাগ নারীকে এ ঋণের আওতায় আনা হয়েছে। সরকার সারাদেশে ক্ষুদ্র ঋণ কার্যক্রমকে আরো জোরদার করার লক্ষ্যে ২০১৯-২০২০ বাজেটে ৬৪ কোটি ৫০ লাখ টাকা বরাদ্দ দিয়েছে। সামাজিক বেষ্টনীর আওতায় ২৫টি মন্ত্রণালয়ের মাধ্যমে ১৩০টিরও বেশি কর্মসূচি বাস্তবায়নের মাধ্যমে ২৮ লাখ পরিবারকে সহায়তা প্রদান করা হচ্ছে। ২০১৯-২০ অর্থ বছরে সামাজিক নিরাপত্তা খাতে ৭৪ হাজার ৩৬৭ কোটি টাকা বরাদ্দ রাখা হয়েছে বলে পরিকল্পনা মন্ত্রী সংসদকে জানান।
তিনি বলেন, সরকার চরম দারিদ্র সীমা শুন্যের কোটায় নামিয়ে আনার লক্ষ্যে ৮ম পঞ্চবার্ষিক পরিকল্পনা প্রণয়নের কার্যক্রম শুরু করেছে।