১৩ ফেব্রুয়ারি থেকে মুক্তিযোদ্ধাদের বিশেষ এনআইডি বিতরণ শুরু

101
১৩ ফেব্রুয়ারি
Social Share

নির্বাচন কমিশন (ইসি) আগামী রবিবার (১৩ ফেব্রুয়ারি) থেকে জাতীর বীর সন্তান মুক্তিযোদ্ধাদের উন্নতমানের বিশেষ জাতীয় পরিচয়পত্র (এনআইডি) বা স্মার্টকার্ড বিতরণ কার্যক্রম শুরু করছে। আজ বৃহস্পতিবার স্মার্টকার্ড (আইডিইএ-২)  প্রকল্পের উপ-প্রকল্প পরিচালক স্কোয়াড্রন লিডার কাজি আশিকুজ্জামান গণমাধ্যমকে এ তথ্য নিশ্চিত করেছেন।

জানা গেছে, মুক্তিযোদ্ধাদের বীর মুক্তিযোদ্ধা লেখা বিশেষ স্মার্টকার্ড দেওয়া হবে। এক্ষেত্রে স্মার্টকার্ডের চিপ’র নিচ দিয়ে লেখা থাকবে শব্দ দু’টি। মুক্তিযোদ্ধা হিসেবে রাষ্ট্রপতি মো. আবদুল হামিদ, প্রাধান নির্বাচন কমিশনার কে এম নুরুল হুদা, কমিশনার মাহবুব তালুকদার, মুক্তিযোদ্ধা বিষয়ক মন্ত্রী আ ক ম মোজাম্মেল হকসহ বীর মুক্তিযোদ্ধা সংসদ সদস্য, রাজনীতিবিদ, সেনা, নৌ ও বিমান বাহিনীর সদস্য, সাংস্কৃতিক ব্যক্তিত্বসহ  দেশের  ১০০ জন মুক্তিযোদ্ধাকে এই বিশেষায়িত স্মার্ট জাতীয় পরিচয়পত্র প্রদানের মাধ্যমে এই কর্মসূচির উদ্বোধন করা হবে। 

কাজি আশিকুজ্জামান জানান, বীর মুক্তিযোদ্ধা লেখা সংবলিত  বিশেষ স্মার্ট কার্ড প্রদানের জন্য  মুক্তিযুদ্ধ বিষয়ক মন্ত্রণালয় হতে মুক্তিযোদ্ধাদের তালিকা সংগ্রহ করে অনুমোদিত তালিকার ভিত্তিতে বীর মুক্তিযোদ্ধাদের জন্য স্মার্ট কার্ড প্রস্তুত করা হচ্ছে। পর্যায়ক্রমে দেশের সকল মুক্তিযোদ্ধাদের হাতে স্মার্ট জাতীয় পরিচয়পত্র তুলে দেওয়া হবে। বর্তমানে দেশে গেজেটেড মুক্তিযোদ্ধা সংখ্যা প্রায় ১ লাখ ৮৩ হাজার ৫৬০ জন। যে সকল মুক্তিযোদ্ধারা পূর্বে স্মার্ট কার্ড পেয়েছেন তাদেরকেও পর্যায়ক্রমে এই বিশেষ মর্যাদা পূর্ণ স্মার্ট জাতীয় পরিচয়পত্র প্রদান করা হবে।

…………………………………………………………………………………………………….,…….

জানা গেছে, মুক্তিযোদ্ধাদের বীর মুক্তিযোদ্ধা লেখা বিশেষ স্মার্টকার্ড দেওয়া হবে। এক্ষেত্রে স্মার্টকার্ডের চিপ’র নিচ দিয়ে লেখা থাকবে শব্দ দু’টি। মুক্তিযোদ্ধা হিসেবে রাষ্ট্রপতি মো. আবদুল হামিদ, প্রাধান নির্বাচন কমিশনার কে এম নুরুল হুদা, কমিশনার মাহবুব তালুকদার, মুক্তিযোদ্ধা বিষয়ক মন্ত্রী আ ক ম মোজাম্মেল হকসহ বীর মুক্তিযোদ্ধা সংসদ সদস্য, রাজনীতিবিদ, সেনা, নৌ ও বিমান বাহিনীর সদস্য, সাংস্কৃতিক ব্যক্তিত্বসহ  দেশের  ১০০ জন মুক্তিযোদ্ধাকে এই বিশেষায়িত স্মার্ট জাতীয় পরিচয়পত্র প্রদানের মাধ্যমে এই কর্মসূচির উদ্বোধন করা হবে। 

কাজি আশিকুজ্জামান জানান, বীর মুক্তিযোদ্ধা লেখা সংবলিত  বিশেষ স্মার্ট কার্ড প্রদানের জন্য  মুক্তিযুদ্ধ বিষয়ক মন্ত্রণালয় হতে মুক্তিযোদ্ধাদের তালিকা সংগ্রহ করে অনুমোদিত তালিকার ভিত্তিতে বীর মুক্তিযোদ্ধাদের জন্য স্মার্ট কার্ড প্রস্তুত করা হচ্ছে। পর্যায়ক্রমে দেশের সকল মুক্তিযোদ্ধাদের হাতে স্মার্ট জাতীয় পরিচয়পত্র তুলে দেওয়া হবে। বর্তমানে দেশে গেজেটেড মুক্তিযোদ্ধা সংখ্যা প্রায় ১ লাখ ৮৩ হাজার ৫৬০ জন। যে সকল মুক্তিযোদ্ধারা পূর্বে স্মার্ট কার্ড পেয়েছেন তাদেরকেও পর্যায়ক্রমে এই বিশেষ মর্যাদা পূর্ণ স্মার্ট জাতীয় পরিচয়পত্র প্রদান করা হবে।