হৃদয়ের জন্য যোগাসন

268
যোগাসন
Social Share

যোগাসন :হার্ট বা হৃৎপিণ্ড আমাদের শরীরের খুবই গুরুত্বপূর্ণ অঙ্গ, যা কিছুক্ষণের জন্য কাজ করা বন্ধ করে দিলে বেঁচে থাকা অসম্ভব। কারণ, প্রতিমুহূর্তে মস্তিষ্কসহ শরীরের প্রতিটি অংশে রক্তের মাধ্যমে খাবার ও অক্সিজেন পাঠায় এই হৃৎপিণ্ড। তাই হৃৎপিণ্ড যাতে সুস্থ থাকে, তার জন্য আছে নানা ধরনের মুদ্রা। হৃদয়ের নানা সমস্যার মিটমাট করে দিতে পারে যোগাসন । তেমন কয়েকটি গুরুত্বপূর্ণ যোগাভ্যাসের বর্ণনা থাকছে এখানে।

শশকাসন
যেভাবে করবেন: বজ্রাসনে বসে শ্বাস টানতে টানতে দুটি হাত ওপরের দিকে ওঠান। সামনের দিকে ঝুঁকতে ঝুঁকতে শ্বাস ছেড়ে দিন এবং হাত দুটিকে সামনের দিকে ছড়িয়ে হাতের পাতা নিচের দিকে রেখে কনুই পর্যন্ত দুটি হাত মাটির সঙ্গে ঠেকিয়ে দিন। কপালও মাটিতে লেগে থাকে। ২০-৩০ সেকেন্ড এই অবস্থায় থেকে শ্বাস নিতে নিতে বজ্রাসনে ফিরে আসুন। আসনে থাকা অবস্থায় স্বাভাবিক শ্বাসপ্রশ্বাস চলবে।

সময়কাল: ২০-৩০ সেকেন্ড করে প্রতিদিন খালি পেটে ৪-৬ বার করুন।

অপান বায়ু মুদ্রা

যোগাসন

মুদ্রা হচ্ছে আসনের বিকশিত রূপ। অপান বায়ু মুদ্রা একটি হস্ত মুদ্রা।

যেভাবে করবেন: তর্জনীর শীর্ষদেশ বৃদ্ধাঙ্গুলের মূলে বা গোড়ায় লাগিয়ে হালকা চাপুন। মধ্যমা ও অনামিকার শীর্ষদেশ বৃদ্ধাঙ্গুলের শীর্ষদেশে লাগিয়ে দিলে তৈরি হয়ে গেল আপান বায়ু মুদ্রা। কনিষ্ঠা সোজা থাকবে। এটা দুই হাতে একসঙ্গে করবেন।

সময়কাল: প্রতিদিন একটানা কমপক্ষে ১০ মিনিট করবেন। এই মুদ্রা হাঁটতে, চলতে, বসে থাকা অবস্থায়, অর্থাৎ যেকোনো সময়ই করতে পারবেন।

অনুলোম–বিলোম প্রাণায়াম

যোগাসন

এই শ্বাসপ্রশ্বাসের ব্যায়াম বা প্রাণায়ামের মাধ্যমে আমাদের শরীরের সব নাড়ি পরিশুদ্ধ হয়ে পড়ে এবং হৃৎপিণ্ডসহ শরীরের সব জায়গায় ঠিকমতো অক্সিজেন পৌঁছায়।

যেভাবে করবেন: যেকোনো আসনে মেরুদণ্ড সোজা রেখে বসুন। চেয়ারে বসেও করতে পারেন। বাঁ হাত বাঁ হাঁটুর ওপর ধ্যান বা বায়ু মুদ্রাতে রাখুন বা কোলের ওপর বিশ্রাম অবস্থায় রাখুন। ডান হাতের বৃদ্ধাঙ্গুলি দিয়ে নাকের ডান ছিদ্র বন্ধ করে বাঁ ছিদ্র দিয়ে শ্বাস টেনে ফুসফুস সম্পূর্ণরূপে ভরে ফেলুন। এরপর মধ্যমা ও অনামিকার সাহায্যে নাকের বাঁ ছিদ্র বন্ধ করে ডান ছিদ্র দিয়ে শ্বাস ছাড়ুন। আবার ডান ছিদ্র দিয়েই শ্বাস টেনে নিন। এরপর আঙুল পরিবর্তন করে বৃদ্ধাঙ্গুলি দিয়ে নাকের ডান ছিদ্র বন্ধ করে বাঁ ছিদ্র দিয়ে শ্বাস ছাড়ুন। পুনরায় বাঁ ছিদ্র দিয়ে শ্বাস টেনে নিন। এভাবে চলতে থাকবে। যাতে ভুল না হয়, সে জন্য একটা টেকনিক মনে রাখবেন, যখনই শ্বাস নেবেন তারপরই আঙুল পরিবর্তন করতে হবে।

সময়কাল: প্রতিদিন অবশ্যই খালি পেটে কমপক্ষে পাঁচ মিনিট করুন। আরও ভালো ফলাফলের জন্য ১০-১৫ মিনিট করতে পারেন।