স্বাস্থ্যবিধি মেনে উন্নয়নমূলক কাজ নিশ্চিতের তাগিদ

45
Social Share

‘করোনার সাথে লড়াই করার পাশাপাশি উন্নয়ন কাজও নিশ্চিত করতে হবে স্বাস্থ্য বিধি মেনে। লকডাউন শিথিল হলেও স্বাস্থ্য বিধি মানতে হবে কঠোরভাবে।’ সড়ক ও জনপথ বিভাগ বরিশাল জোনের কর্মকর্তাদের সাথে এক ভার্চুয়াল সভায় এসব কথা বলেন সড়ক যোগাযোগ ও সেতু মন্ত্রী ওবায়দুল কাদের।

শনিবার সকাল সোয়া ১১টায় সড়ক ও জনপথ বিভাগ বরিশাল জোন কার্যালয়ে ঢাকা থেকে ভিডিও কনফারেন্স সংযুক্ত হন সড়ক মন্ত্রী। বরিশাল জোনের সড়ক ও জনপথ অধিদপ্তরের প্রধান সড়ক ও মহাসড়কে ঈদের প্রস্তুতি উপলক্ষ্যে এই ভিডিও কনফারেন্সের আয়োজন করা হয়।

এ সময় তিনি আরও বলেন, ‘করোনাকাল কবে শেষ হবে তা অনিশ্চিত। আমাদের করোনার সাথে বসবাসের অভ্যাস করতে হবে। যারা স্বাস্থ্য বিধি না মানবে তাদের শাস্তির আওতায় আনতে হবে।’

বিরোধী দল প্রসঙ্গে মন্ত্রী বলেন, ডিজিটাল নিরাপত্তা আইন নিয়ে তারাই উদ্বিগ্ন যারা অপপ্রচার ও গুজব ছড়াচ্ছে। সবাইকে অপপ্রচার ও গুজব ছড়ানো থেকে বিরত থাকার আহ্বান জানান সড়ক মন্ত্রী।

ভাঙ্গা-বরিশাল-কুয়াকাটা ফোরলেন প্রকল্পের নিয়ে মন্ত্রী অসন্তোষ প্রকাশ করেন। পায়রা ও বেকুটিয়া সেতু নির্মাণ কাজ যথাসময়ে শেষ করার তাগিদ দেন তিনি। মন্ত্রী আরও বলেন, বর্ষায় হঠাৎ করে কাজ শুরু করলে উন্নয়ন ব্যাহত হয়। তাই এ বিষয়টি মাথায় রেখে উন্নয়ন কর্মকাণ্ড চালাতে হবে। গুণগত মান ঠিক রেখে যথা সময়ে কাজ শেষ করতে হবে। কোন ঠিকাদার উন্নয়ন কাজ নিয়ে গাফিলতি করলে তার কার্যাদেশ বাতিল করতে হবে। প্রয়োজনে তার লাইসেন্স কালো তালিকাভূক্ত করতে হবে। ঠিকাদার খারাপ কাজ করলে সংশ্লিষ্ট প্রকৌশলী এর দায় এড়াতে পারে না। খারাপ কাজের জন্য তিরস্কার করা হবে।

বিআরটিসি গাড়ির যথাযথ রক্ষণাবেক্ষণ এবং বিআরটিএ’ কে দালাল মুক্ত করতে সংশ্লিষ্টদের নির্দেশ দেন সড়ক মন্ত্রী।

এ সময় বরিশাল জোনের অতিরিক্ত প্রধান প্রকৌশলী আবু হেনা মো. তারেক ইকবাল সড়ক মন্ত্রীকে জানান, ভাঙ্গা-বরিশাল-কুয়াকাটা ফোর লেন মহাসড়কের জমি অধিগ্রহণ চলমান আছে। বরিশাল জোনে ১২টি প্রকল্প চলমান আছে। সার্বিক অগ্রগতি ৫৫ ভাগ। এবারের ঈদ যাত্রায় কোন দুর্ভোগ হবে না বলে মন্ত্রীকে অবগত করেন তিনি।

এই সভায় সভাপতিত্ব করেন সওজ বরিশাল জোনের অতিরিক্ত প্রধান প্রকৌশলী আবু হেনা মো. তারেক ইকবাল। ভার্চুয়াল সভায় ঢাকা থেকে সড়ক যোগাযোগ সচিব মো. নজরুল ইসলাম এবং প্রধান প্রকৌশলী মো. আবদুস সবুর ছাড়াও বরিশাল বিভাগের বিভিন্ন পর্যায়ের কর্মকর্তারা উপস্থিত ছিলেন।