সৌরভের ব্লেজারেও ইতিহাস

১৯৯৬ সাল। ইংল্যান্ডের বিখ্যাত লর্ডস ক্রিকেট গ্রাউন্ডে অভিষেক টেস্ট খেলতে নামল ভারতের এক তরুণ। ইংল্যান্ডের ওই দলে সেই তরুণের প্রতিপক্ষ বোলাররা ছিলেন ক্রিস লুইস, ডমিনিক কর্ক এবং অ্যালান মুলালি। এই ভয়ংকর ইংলিশ বোলারদের পিটিয়ে ছাতু করে সেই ম্যাচে ১৩১ রানের মারকাটারি ইনিংস খেলেছিলেন সেই তরুণ। এরপর দুই হাত তুলে তার সেই উৎসবের ভঙ্গি ভারতীয় ক্রিকেটের অ্যালবামে ঢুকে গেছে। সেই মানুষটির নাম সৌরভ গাঙ্গুলী।

এর চার বছর পর ২০০০ সালের ১০ নভেম্বর। বাংলাদেশের ক্রিকেটে এক ঐতিহাসিক দিন। সদ্য টেস্ট মর্যাদা পাওয়া দলটি প্রথম টেস্ট খেলতে নামল পরাক্রমশালী ভারতের বিপক্ষে। ভারতের অধিনায়ক হিসেবে ওই ম্যাচেই অভিষেক হয়ে গেল আরেক বাঙালি সৌরভ গাঙ্গুলীর। অনভিজ্ঞ বাংলাদেশকে ৯ উইকেটের বিশাল ব্যবধানে হারিয়ে অধিনায়ক সৌরভের যাত্রা শুরু হয়। তারপর তিনি হয়ে ওঠেন ক্রিকেট ইতিহসের অন্যতম শ্রেষ্ঠ অধিনায়ক।

সেই ঘটনার ১৯ বছর পর ২০১৯ সালের অক্টোবর। ভারতীয় ক্রিকেট বোর্ডের নবনির্বাচিত প্রেসিডেন্ট হিসেবে অভিষেক ম্যাচ খেলতে সৌরভ গাঙ্গুলী গতকাল মুম্বাইয়ে সংবাদ সম্মেলন করেছেন। তার পরনে ছিল একটি ব্লেজার; যে ব্লেজারটি ১৯ বছর আগে বাংলাদেশের অভিষেক টেস্টে পরেছিলেন তিনি। সেই ব্লেজার গায়ে চাপিয়েই নাঈমুর রহমান দুর্জয়কে নিয়ে টস করেছেন। গতকাল সকালে বোর্ড প্রেসিডেন্ট হিসেবে প্রথম পদক্ষেপ নেওয়ার আগে সেই ব্লেজার পরেন সৌরভ। যদিও সেটা নাকি এখন বেশ ঢিলে হয়ে গেছে। কিন্তু সৌরভের মতো একজন দুর্দান্ত নেতা পেয়েছে ভারতীয় ক্রিকেট।