সুস্থ রয়েছেন সৌরভ গাঙ্গুলি, প্রাইভেট রুমে স্থানান্তর

50
Social Share

সুস্থ রয়েছেন ভারতীয় ক্রিকেট বোর্ডের (বিসিসিআই) সভাপতি ও সাবেক অধিনায়ক সৌরভ গাঙ্গুলি। সিসিইউ থেকে বের করে তাকে ইতোমধ্যে প্রাইভেট রুমে স্থানান্তরিত করা হয়েছে।

শুক্রবার রাতে এক বিবৃতিতে এই জানিয়েছে হাসপাতাল কর্তৃপক্ষ। বিসিসিআই প্রেসিডেন্ট সৌরভের মেডিকেল বুলেটিন নিয়মিত প্রকাশ করছে হাসপাতাল।

বর্তমানে চিকিৎসক আফতাব খান ও চিকিৎসক অশ্বিন মেহতার তত্ত্বাবধানে রয়েছেন সৌরভ গাঙ্গুলি। আরও বেশ কয়েকজন বিশিষ্ট চিকিৎসক তাকে দেখছেন বলে জানা গেছে। ডা. দেবী শেঠি, ডা. অজিত দেশাই, ডা. সরোজ মন্ডল, ডা. সপ্তর্ষি বসু সাফল্যের সাথে অ্যাঞ্জিওপ্লাস্টি করেন সৌরভের। এখন তাকে পর্যবেক্ষণে রাখা হয়েছে।

সৌরভকে ‘ড্রাগ ইলিউটিং’ স্টেন্ট দেওয়া হয়েছে। তবে স্টেন্ট বসানোর আগে সৌরভকে সেডেটিভ দেওয়া হয়। ফলে বেশ কিছুক্ষণ আচ্ছন্ন ছিলেন তিনি। তবে কিছুক্ষণ পরই সৌরভ স্বাভাবিক অবস্থায় ফিরে আসেন।

চলতি মাসের শুরুতে হঠাৎ করে বাড়িতে জিম করার সময় ব্ল্যাক-আউট হওয়ার পর উডল্যান্ডস হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছিল সৌরভকে। তার তিনটি ধমনীতে ব্লকেজ ধরা পড়ে। সেখানেই তার হৃদযন্ত্রে একটি স্টেন্ট বসানো হয়। সেবারও সৌরভের ডানহাত দিয়ে শরীরে স্টেন্ট ঢোকানো হয়েছিল। এবারও সেই প্রক্রিয়াই অনুসরণ করা হয়েছে বলে জানা গেছে।

বৃহস্পতিবার সফলভাবে দু’টি স্টেন্ট বসানো হলেও শুক্রবারও সৌরভকে ক্রিটিক্যাল কেয়ার ইউনিটেই রাখা হয়। পাশাপাশি অক্সিজেনের সাপোর্টে থাকবেন সৌরভ বলেও জানানো হয়েছিল। তবে এদিন মাত্রা কম করা হবে বলেও তথ্য মেলে। বৃহস্পতিবারই সৌরভকে দেখতে বাইপাসের ধারে বেসরকারি হাসপাতালে গিয়েছিলেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়।

বৃহস্পতিবার দুপুর তিনটার দিকে সৌরভকে হাসপাতালের ক্যাথ ল্যাবে নিয়ে যাওয়া হয়। পুরো প্রক্রিয়াটি শেষ হতে প্রায় ঘণ্টা দু’য়েক সময় লাগে। প্রথমে জানা গিয়েছিল এদিন সৌরভের একটি স্টেন্ট বসানো হবে। কিন্তু পরে দুটি ধমনীতেই স্টেন্ট বসানোর সিদ্ধান্ত নেন চিকিৎসকরা। হৃদরোগ বিশেষেজ্ঞ দেবী শেঠি এবং অশ্বিন মেহতার তত্ত্বাবধানে পুরো প্রক্রিয়া সম্পন্ন হয়।

হাসপাতাল থেকে বের হওয়ার সময় দেবী শেঠি জানিয়েছিলেন, ‘পুরো প্রক্রিয়া সুষ্ঠুভাবে সম্পন্ন হয়েছে। সৌরভের অবস্থা স্থিতিশীল। কোনও সমস্যা হয়নি৷’

প্রথম স্টেন্ট বসানোর পর সুস্থ হয়ে ৭ জানুয়ারি হাসপাতাল থেকে ছাড়া পেয়েছিলেন সৌরভ। কিন্তু ২০ দিনের মাথায় অর্থাৎ বুধবার আচমকাই বুকে ব্যথা শুরু হয় বিসিসিআই প্রেসিডেন্টের। পরে গ্রিন করিডোরে করে সৌরভকে স্থানীয় অ্যাপোলো হাসপাতালে নেওয়া হয়।