‘সীমান্তে কেউ পরীক্ষা নিলে দেওয়া হবে উচিত জবাব’, দীপাবলিতে সীমান্তে মোদির বার্তা

Social Share

কেউ পরীক্ষা নিতে চাইলে তাকে উচিত জবাব দেওয়া হবে৷ রাজস্থানে সেনা জওয়ানদের সঙ্গে দীপাবলি উদযাপন করতে গিয়ে এই বার্তাই দিলেন প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি৷ প্রধানমন্ত্রী হওয়ার পর থেকে সীমান্তে সেনা জওয়ানদের সঙ্গেই দীপাবলি কাটান প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি৷ করোনার মধ্যেও এ বছর তার ব্যতিক্রম হচ্ছে না।

এ বছর রাজস্থানের জয়সলমেরে লোঙ্গেওয়ালা পোস্টে পৌঁছে গিয়েছেন মোদি৷ পাক সীমান্ত লাগোয়া এই পোস্ট কৌশলগত ভাবে খুবই গুরুত্বপূর্ণ ভারতের কাছে৷ শুক্রবারই সংঘর্ষবিরতি লঙ্ঘন করে কাশ্মীরের বিভিন্ন জায়গায় হামলা চালিয়েছে পাকিস্তানের সেনা৷ এর ফলে ভারতীয় সেনা ও বিএসএফ-এর মোট পাঁচ জন সেনা শহিদ হয়েছেন৷ প্রাণ হারিয়েছেন ৬ জন সাধারণ মানুষও৷ সেই পরিপ্রেক্ষিতে এ দিন প্রধানমন্ত্রীর এই হুঁশিয়ারি তাৎপর্য্যপূর্ণ ৷ একই সঙ্গে চীনকেও তিনি ফের বার্তা দিয়ে রাখলেন বলেই মনে করা হচ্ছে৷

সেনা জওয়ানদের উদ্দেশে প্রধানমন্ত্রী বলেন, ‘একাধিক দেশের সঙ্গে সীমান্ত রয়েছে ভারতের৷ কিন্তু লোঙ্গেওয়ালা এমন একটি পোস্ট, যার নাম প্রত্যেক ভারতীয় জানে৷ লোঙ্গেওয়ালার যুদ্ধের কথাও প্রত্যেক ভারতবাসীর জানা৷’ আগামী বছরই লোঙ্গেওয়ালায় ভারত- পাকিস্তান যুদ্ধের ৫০ বছর পূর্তি হচ্ছে৷

সেনা জওয়ানদের উদ্ধুদ্ধ করতে প্রধানমন্ত্রী আরও বলেন, ‘অনেকেই বলেন কেন আমি প্রত্যেক বছর দীপাবলি সেনা জওয়ানদের সঙ্গে কাটাই৷ আমরা নিজেদের পরিবার, কাছের মানুষের সঙ্গে দীপাবলি উদযাপন করি৷ আর আমার কাছের মানুষ, পরিবার হলেন আপনারা৷’ তিনি আরও বলেন, ১৩০ কোটি ভারতীয়ের হয়ে সেনা জওয়ানদের জন্য তিনি মিষ্টি নিয়ে এসেছেন৷ তার কথায়, ‘আপনাদের সঙ্গে আমি যত সময় কাটাই, ততই দেশকে সেবা করার এবং নিরাপদ রাখার অঙ্গীকার আরও দৃঢ় হয়৷’

এ বছর দীপাবলিতে ভারতের সেনাদের সম্মানে একটি করে প্রদীপ জ্বালানোর জন্য দেশবাসীর কাছে অনুরোধ করেছেন প্রধানমন্ত্রী৷ শুক্রবারও সেই আবেদন রেখেছেন তিনি৷ ২০১৪ সালে প্রধানমন্ত্রী নির্বাচিত হওয়ার পরই দিওয়ালিতে সিয়াচেনে পৌঁছে গিয়েছিলেন নরেন্দ্র মোদি৷ এর পর গত কয়েক বছরে একে একে উত্তরাখণ্ড, হিমাচল প্রদেশ, পাঞ্জাব এবং জম্মু কাশ্মীরের সীমান্তে  সেনাদের  সঙ্গে দীপবালি কাটিয়েছেন তিনি৷ গত বছর কাশ্মীরের রাজৌরিতে সেনা জওয়ানদের সঙ্গে দীপাবলি উদযাপন করেন মোদি।