সারা বিশ্বের জন্য করোনার ভ্যাকসিন বানাতে পারে ভারত: বিল গেটস

বিল-গেটস
Social Share

ওয়াশিংটন: মাইক্রোসফটের কর্ণধার বিল গেটস জানালেন, কেবলমাত্র নিজের দেশের জন্য নয় গোটা বিশ্বের জন্য করোনার ভ্যাকসিন বানাতে পারবে ভারতীয় ওষুধ সংস্থারা। পাশাপাশি, ভারতের ফার্মা শিল্পের কাজের ভূয়সী প্রশংসা করেন তিনি।

COVID-19: India’s War Against The Virus নামক একটি ডকুমেন্টারিতে বিল গেটস বলেন, অনেক গুরুত্বপূর্ণ কাজ হচ্ছে ভারতে। অন্য অসুখের নিরাময়ের জন্য ভ্যাকসিন বানানোর যে ক্যাপাসিটি তৈরি করা হয়েছে, সেটা ব্যবহার করে সারা বিশ্বের জন্য করোনার টিকা বানাবে ভারত। আর তাতেই মৃত্যুর সংখ্যা কমবে, ধীরে ধীরে মহামারি শেষ হবে।

বিল গেটস আরও বলেন, ভারতের শহরকেন্দ্রিক অঞ্চলের জনঘনত্ব ও দেশের বৃহৎ জনসংখ্যা একটা বড় চ্যালেঞ্জ। তিনি বলেন, সারা বিশ্বের মধ্যে সবচেয়ে বেশি টিকা তৈরি হচ্ছে ভারতে। পুণের সেরাম ইনস্টিটিউট অফ ইন্ডিয়ার কথাও আলাদা করে উল্লেখ করেন তিনি। সারা বিশ্বকে অসুধ ও টিকা দিচ্ছে ভারত বলেও জানান তিনি।

বিল গেটস জানান, করোনার ভ্যাকসিন তৈরি করতে বিল ও মেলিন্ডা গেটস ফাউন্ডেশন ভারত সরকারের বায়োটেকনোলজি বিভাগ, আইসিএমআর ও মুখ্য বৈজ্ঞানিক উপদেষ্টার সঙ্গে একযোগে কাজ করছে। করোনা টিকা তৈরিতে বায়ো-ই, ভারত বায়োটেক যেভাবে করছে, তারও প্রশংসা করেন তিনি।

উল্লেখ্য, বিশ্বের সর্ববৃহৎ ভ্যাকসিন প্রস্তুতকারী সংস্থা ভারতের সেরাম ইনস্টিটিউট অফ ইন্ডিয়া। অক্সফোর্ড বিশ্ববিদ্যালয়ের সঙ্গে যৌথভাবে করোনার ভ্যাকসিন তৈরি করবে বলে জানিয়েছে এই ভ্যাকসিন ও ওষুধ নির্মাতা সংস্থা। তাঁরা জানিয়েছে, পরিকল্পনা মাফিক কাজ এগোলে আগামী অক্টোবরের মধ্যেই মারণ করোনা ভাইরাসের টিকা বাজারে চলে আসবে।

সেরাম ইনস্টিটিউট জানিয়েছে, প্রাথমিকভাবে প্রথম ছ-মাসের মধ্যে আমরা ৫০ লাখ ডোজ উৎপাদন করতে পারব। এর পরে বাড়িয়ে মাসে ১ কোটি ডোজ করোনা ভ্যাকসিন উৎপাদন করার সক্ষমতা অর্জন করব আমরা।