সম্মতি ছাড়া শারীরিক সম্পর্ক হলেই ধর্ষণ: ড্যানিশ পার্লামেন্ট

10
Social Share

ডেনমার্কে ধর্ষণবিরোধী আইন কঠোর করা হয়েছে। দেশটিতে দুই পক্ষের সম্মতি ছাড়া শারীরিক সম্পর্ক হলেই তা ধর্ষণ বলে বিবেচিত হবে। গতকাল বৃহস্পতিবার ড্যানিশ পার্লামেন্টে পাস হওয়া এই নতুন আইন আগামী ১ জানুয়ারি থেকে কার্যকর করা হবে।

ডেনমার্কের পুরনো ধর্ষণবিরোধী আইনে প্রসিকিউটরদের প্রমাণ দেওয়া লাগত- ধর্ষক এমন কারো ওপর সহিংসতা চালিয়েছে, যার বাধা দেওয়ার ক্ষমতা ছিল না। কিন্তু নতুন আইনে এই নিয়ম থাকছে না।

ড্যানিশ আইনমন্ত্রী নিক হেক্কারুপ এক বিবৃতিতে বলেন, এখন এটা পরিষ্কার যে, শারীরিক সম্পর্কে যদি দুই পক্ষেরই সম্মতি না থাকে, তবে সেটি ধর্ষণ হিসাবে বিবেচিত হবে।

আন্তর্জাতিক মানবাধিকার সংস্থা অ্যামনেস্টি ইন্টারন্যাশনাল জানিয়েছে, বিনাসম্মতিতে শারীরিক সম্পর্ককে ধর্ষণ হিসেবে স্বীকৃতি দেওয়া ইউরোপের ১২তম দেশ হিসাবে নাম লেখালো ডেনমার্ক।
সংস্থাটির নারী অধিকার বিষয়ক গবেষক অ্যানা ব্লাস বলেন, এটা ডেনমার্কের নারীদের জন্য অসাধারণ একটি দিন। দেশটি পুরনো ও বিপজ্জনক ধর্ষণ আইনটি বাতিল করে এই অপরাধের কালিমা এবং দায়মুক্তির অবসান ঘটাতে সাহায্য করেছে।

২০১৮ সালে অনেকটা একই ধরনের আইন পাস করেছে ডেনমার্কের প্রতিবেশী সুইডেন। এর পরপরই সেখানে ধর্ষণে অভিযুক্তের সংখ্যা ৭৫ শতাংশ বেড়ে যায়। সরকারি হিসাব অনুসারে, ডেনমার্কে প্রতিবছর ১১ হাজার ৪০০ জন নারী ধর্ষণ বা ধর্ষণচেষ্টার শিকার হন।

সূত্র: আলজাজিরা।