ষষ্ঠীপূজার মধ্য দিয়ে দুর্গাপূজার আনুষ্ঠানিকতা শুরু

37
Social Share

ষষ্ঠীপূজার মধ্য দিয়ে  হিন্দু ধর্মাবলম্বীদের  সবচেয়ে বড় ধর্মীয় উৎসব শারদীয় দুর্গাপূজার আনুষ্ঠানিকতা শুরু হয়েছে।
ষষ্ঠী তিথিতে দেবী দুর্গা পিতৃালয়ে অর্থাৎ বাবার বাড়িতে আসেন। পঞ্জিকা মেনে ষষ্ঠী শুরু হতেই সকালে দেবী দুর্গাকে স্বাগত জানান ভক্তকূল। উলুধ্বনি, কাসর ঘণ্টা, শঙ্খ ও ঢাক-ঢোলের তাল জানিয়ে দিলো মা এসেছেন। এর মধ্য দিয়ে শুরু হলো হিন্দু ধর্মাবলম্বীদের সবচেয়ে বড় ধর্মীয় এ উৎসব।
সনাতন হিন্দু সম্প্রদায়ের সবচেয়ে বড় ধর্মীয় উৎসবকে ঘিরে সারাদেশে উৎসবের আমেজ শুরু হয়েছে। এবার সারা দেশে ৩২ হাজার ১১৮টি পূজামন্ডপে দুর্গোৎসব অনুষ্ঠিত হচ্ছে। আর রাজধানীতে পূজা হচ্ছে ২৩৮টি।
ঢাকা মহানগর সর্বজনীন পূজা কমিটির সাধারণ সম্পাদক কিশোর রঞ্জন মন্ডল জানান, সোমবার সকাল ৯টায় দেবী দুর্গার ষষ্ঠাদি কল্পারম্ভে ষষ্ঠী পূজা শুরু হয়েছে। ষষ্ঠী তিথিতে বেলতলায় বিহিতপূজার পর দেবীর আমন্ত্রণ ও অধিবাসের মধ্য দিয়ে হয়েছে মূল দুর্গোৎসবের সূচনা।
ঢাকেশ্বরী মন্দির ছাড়াও ষষ্ঠী পূজা হয়েছে, রামকৃষ্ণ মঠ, রমনা কালি মন্দির মন্ডপ, বনানী মাঠ, জগন্নাথ হল মন্ডপ, বরদেশ্বরী মন্দির, সিদ্ধেশ্বরী মন্দির, জয়কালি মন্দির, রামসীতা মন্দিরে ষষ্ঠী পূজার আয়োজন করা হয়। মঙ্গলবার মহাসপ্তমী বিহিত পূজা, বুধবার অস্টমী তিথিতে কুমারী পূজা, বৃহস্পতিবার মহা নবমী এবং শুক্রবার শুভ দশমী বিহীত পূজা এবং বিসর্জনের মধ্য দিয়ে  শেষ হবে দুর্গাপূজা।
হিন্দু বিশ্বাস অনুযায়ী, দশভূজা দেবী দুর্গা অসুর বধ করে শান্তি প্রতিষ্ঠার লক্ষ্যে প্রতি শরতে কৈলাস ছেড়ে কন্যারূপে মর্ত্যলোকে আসেন। সন্তানদের নিয়ে পক্ষকাল পিতার গৃহে কাটিয়ে আবার ফিরে যান দেবালয়ে। আশ্বিন শুক্লপক্ষের এই ১৫টি দিন দেবীপক্ষ, মর্ত্যলোকে উৎসব।
বিশুদ্ধ পঞ্জিকা মতে, শুক্রবার বিজয়া দশমীতে প্রতিমা বিসর্জনের মধ্য দিয়ে এবারের দুর্গোৎসবের শেষ হবে। একটি বছরের জন্য ‘দুর্গতিনাশিনী’ দেবী ফিরে যাবেন কৈলাসে দেবালয়ে।
অনুষ্ঠান সূচি : মহাসপ্তমী (মঙ্গলবার) : সকাল ৮টা ৫৯ মিনিটের মধ্যে শ্রী শ্রী দুর্গাদেবীর নবপত্রিকা প্রবেশ ও স্থাপন, সপ্তমাদি কল্পারম্ভ ও মহাসপ্তমী বিহিত পূজা।
মহাঅষ্টমী (বুধবার): সকাল ৮টা ৫৯ মিনিটে  দুর্গাদেবীর অষ্টমাদি কল্পারম্ভ ও বিহিত পূজা। রাত ১১টা ৫৪ মিনিটে সন্ধি পূজা আরম্ভ ও সমাপনী রাত ১২টা ৪২ মিনিটে। মধ্যাহ্ণ মহাপ্রসাদ বিতরণ।
মহানবমী (বৃহস্পতিবার): সকাল ৯টা ৫৭ মিনিটের মধ্যে দুর্গাদেবীর মহানবমী কল্পারম্ভ ও মহানবমী বিহিত পূজা।
বিজয়া দশমী (শুক্রবার): সকাল ৯টা ১১ মিনিটের মধ্যে দুর্গাদেবীর দশী বিহিতপূজা ও পূজান্তে দর্পন বিসর্জন।
রাজধানী ঢাকাসহ সারাদেশের প্রতিটি পূজামন্ডপের নিরাপত্তা রক্ষায় পুলিশ, আনসার, র‌্যাব ও বিডিআর সদস্যরা দায়িত্ব পালন করবেন।
পুলিশ ও র‌্যাবের পাশাপাশি প্রায় প্রতিটি মন্ডপে স্বেচ্ছাসেবক বাহিনী দায়িত্ব পালন করবে। ঢাকেশ্বরী মন্দির  মেলাঙ্গণে মহানগর সার্বজনীন পূজা কমিটির উদ্যোগে কেন্দ্রীয় নিয়ন্ত্রণ কক্ষ খোলা হয়েছে।