শ্বাসরুদ্ধকর ম্যাচে রোমাঞ্চকর জয় কুমিল্লার

Social Share

বঙ্গবন্ধু বাংলাদেশ প্রিমিয়ার লিগের (বিপিএল) শ্বাসরুদ্ধকর ম্যাচে শেষ বলের রোমাঞ্চে জয় পেয়েছে কুমিল্লা ওয়ারির্স। ১৬০ রানের লক্ষ্যে খেলতে নেমে পয়েন্ট টেবিলের শীর্ষ থাকা চট্টগ্রাম চ্যালেঞ্জার্সকে তিন উইকেটে হারিয়েছে দলটি। কুমিল্লার অধিনায়ক ডেভিড মালানের ঝড়ো ইনিংসের পর রনি ও মুজিবের বীরত্বে হতাশ হয়ে মাঠ ছাড়ে চট্টগ্রাম।

কুমিল্লার জয়ের ভিতটা গড়েছেন মূলত ডেভিড মালান। শুরুর দিকে বাকিদের কাছ থেকে বড় ইনিংস না মিললেও একমাত্র মালানই এক প্রান্ত আগলে ঝড়ো গতিতে খেলতে থাকেন। ৫১ বলে ৭৪ রান করা মালানের ব্যাটেই শেষ ওভারে জয়ের বন্দরে পৌঁছায় কুমিল্লা।

শেষ ওভারে ৬ বলে প্রয়োজন ছিল ১৬ রান। এক চার ও এক ছক্কায় দলের জয়কে সুনিশ্চিত করে ফেলেছিলেন আবু হায়দার। কিন্তু যখন দুই বলে চার রান প্রয়োজন তখন রান আউট হয়ে শ্বাসরূদ্ধকর পরিস্থিতির জন্ম দেন মালান। তার ইনিংসে ছিল পাঁচটি চার ও চারটি ছয়। তবে শেষ বলে চার মেরেই জয় নিশ্চিত করেছেন নতুন নামা মুজিব উর রহমান। এতে কুমিল্লা ওয়ারির্স জয় পায় সাত উইকেট হারিয়ে।

এর আগে টস হেরে ব্যাট করতে নামেন চট্টগ্রামের দুই ওপেনার লেন্ডল সিমন্স এবং জুনায়েদ সিদ্দিকি। তারা দু’জনে গড়েন ১০৩ রানের জুটি। পরবর্তীতে এই জুটি ভাঙেন সৌম্য সরকার। ২ ছক্কা ও ৫ চারে ৩৪ বলের মোকাবিলায় ৫৪ রান করে সানজামুলকে ক্যাচ দিয়ে ফিরেন সিমন্স। সিমন্সের পরে অল্পের জন্য অর্ধশতক পূর্ণ না করতে পারার আক্ষেপ নিয়ে মাঠ ছাড়েন জুনায়েদ। তিনি ৩৭ বলে ৪৫ রান করে আউট হন। সিমন্স ও জুনায়েদ বিদায় নেয়ার পরে জিয়াউর রহমানের ৩৪ রানের সুবাদে শেষ পর্যন্ত চট্টগ্রামের সংগ্রহ দাঁড়ায় ১৫৯ রান।