‘শেখ হাসিনার এসডিজি অগ্রগতি পুরস্কারপ্রাপ্তি দেশের ইতিহাসে মাইলফলক’

54
Social Share

প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার এসডিজি অগ্রগতি পুরস্কার পাওয়ার ঘটনা বাংলাদেশের ইতিহাসে মাইলফলক হিসেবে চিহ্নিত হয়ে থাকবে বলে মন্তব্য করেছেন আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক এবং সড়ক পরিবহন ও সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের।

আজ বুধবার (২২ সেপ্টেম্বর) সকালে নিজের সরকারি বাসভবনে ব্রিফিংকালে এই মন্তব্য করেন তিনি।

ওবায়দুল কাদের বলেন, ‘জাতিসংঘের সাসটেইনেবল ডেভেলপমেন্ট সল্যুশনস নেটওয়ার্ক (এসডিএসএন)  দারিদ্র্য দূরীকরণ, পৃথিবীর সুরক্ষা ও সবার জন্য শান্তি-সমৃদ্ধি নিশ্চিত করতে বাংলাদেশকে সঠিক পথে এগিয়ে নেওয়ায় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনাকে এসডিজি অগ্রগতি পুরস্কারে ভূষিত করা করেছে। বাংলাদেশের ইতিহাসে এই অনন্য অর্জন মাইলফলক হিসেবে চিহ্নিত হয়ে থাকবে।’

আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক বলেন, “জাতিসংঘের টেকসই উন্নয়ন সংক্রান্ত নবম বার্ষিক আন্তর্জাতিক সম্মেলনের পূর্ণ অধিবেশনে বাংলাদেশের প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনাকে যুক্তরাষ্ট্রের বিশিষ্ট উন্নয়ন অর্থনীতিবিদ জেফ্রিস্যাক্স ‘জুয়েল ইন দ্য ক্রাউন অব দ্য ডে’ হিসেবে অভিহিত করেন।” তিনি জানান, অর্থনীতিবিদ জেফ্রিস্যাক্স বিশ্বব্যাপী করোনা মহামারি চলাকালে ও এসডিজি অর্জনে শেখ হাসিনার ঐকান্তিক প্রচেষ্টার জন্য তাঁর নেতৃত্বের ভূয়সী প্রশংসা করেন।

ওবায়দুল কাদের বিশ্বপর্যায়ে বাংলাদেশের শ্রেষ্ঠত্ব প্রতিষ্ঠার জন্য আওয়ামী লীগসহ দেশের সব মানুষের পক্ষ থেকে বঙ্গবন্ধু কন্যা প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনাকে অভিনন্দন জানান। তিনি শেখ হাসিনার দীর্ঘায়ু ও সুস্বাস্থ্য কামনা করেন।

বিএনপি নেতাদের বিভিন্ন বক্তব্যের জবাবে আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক বলেন, ‘দেশের মানুষ ভালো আছে বলেই মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীররা ভালো নেই। এ জন্যই বিএনপি মহাসচিব কাল্পনিক অভিযোগ করে বলছেন দেশের মানুষ ভালো নেই। আসলে দেশের মানুষ করোনার অভিঘাত মোকাবেলা করে ভালো আছে বলেই বিএনপি নেতাদের কষ্ট হচ্ছে।’

‘ক্ষমতার মোহে অন্ধ, মিথ্যাচার আর বিষোদগারকে যাঁরা রোজনামচায় পরিণত করেছেন, তাঁরা মানুষের ভালো থাকা পছন্দ করবেন না- এটাই স্বাভাবিক’ উল্লেখ করে ওবায়দুল কাদের বলেন, ‘নেতিবাচক রাজনীতি মানসিকতার কারণে বিএনপিই নিজেদের ভালো থাকার পথে বাধা হয়ে দাঁড়িয়েছে।’

‘করোনার অভিঘাত মোকাবেলা করে জীবন এখন স্বাভাবিক ছন্দে ফিরে আসতে শুরু করেছে’ উল্লেখ করে ওবায়দুল কাদের বলেন, ‘বিএনপি গৃহকোণে বসে নসিহত করছে। তাঁদের এমন আচরণ একদিকে মানুষের এগিয়ে চলার উদ্যমকে ক্ষতিগ্রস্ত করে, অপরদিকে নিজেদের হতাশাকে জাতির সামনে স্পষ্ট করছে।’

‘সরকারকে ক্ষমতা থেকে সরানোর ভাঙা রেকর্ড জনগণ গত ১৩ বছর শুনে আসছে’ উল্লেখ করে আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক বলেন, ‘ঘরে বসে বিএনপি কৃষক, শ্রমিক আর সাংবাদিকদের জন্য মায়াকান্না দেখায়।’

‘কৃষক উৎপাদিত পণ্যের মূল্য পায় না’- বিএনপি নেতাদের এমন বক্তব্য প্রসঙ্গে ওবায়দুল কাদের বলেন, ‘এদেশে কৃষি ও কৃষকের উন্নয়নে বঙ্গবন্ধু যা করেছেন, সেই ধারাবাহিকতা বজায় রেখেছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা।’ কৃষিবান্ধব সরকার হিসেবে শেখ হাসিনা উৎপাদন, পণ্যমূল্য, পণ্য বাজারজাতকরণ,উপকরণ সরবরাহ এবং ঋণ ও প্রণোদনা প্রদানের মাধ্যমে দেশে এক অনন্য উদাহরণ সৃষ্টি করেছেন বলেও উল্লেখ করেন সড়ক পরিবহন ও সেতুমন্ত্রী।

‘বিএনপির শাসনামলে উৎপাদনের জন্য সার চেয়ে পায়নি কৃষকরা, বরং কৃষকদের বুকে গুলি চালিয়েছিল’- বিএনপি নেতাদের এসব স্মরণ করিয়ে দেন ওবায়দুল কাদের। বলেন, ‘কৃষকরা পায়নি প্রয়োজনীয় সাপোর্ট, ভর্তুকি, অথচ আজ বিএনপি নেতারা কৃষকদের জন্য মেকি দরদ দেখাচ্ছেন।’