শুভেন্দুর পর এবার ৫৫ জন বিধায়ক এবং ৮ জন সাংসদ তৃণমূল ছাড়তে পারেন

6
Social Share

কলকাতা: ২০২১ সালের বিধানসভা নির্বাচনের আগে ইস্তফার হিড়িক পড়েছে তৃণমূল শিবিরে। ইতিমধ্যেই একাধিক বিধায়ক ও সাংসদ তৃণমূলের শীর্ষ নেতৃত্বের বিরুদ্ধে রীতিমতো বিদ্রোহ জারি করেছেন। শোনা যাচ্ছে, অন্তত ৫৫ জন বিধায়ক তৃণমূল ছাড়তে পারেন। তবে শুধু বিধায়কই নয়, ৮ জন সাংসদও রয়েছে সেই লাইনে।

সূত্রের খবর, হুগলি, উত্তর ২৪ পরগনায় তৃণমূল সংগঠনে ধস নামাতে পারে। রাজনৈতিক বিশেষজ্ঞদের মতে, তৃণমূলের প্রথম ধাক্কাটি ছিল তৃণমূলের একসময়ের সেকেন্ড ইন কম্যান্ড মুকুল রায়ের দলত্যাগ। একুশের আসন্ন ভোটের আগে যতই দিন যাচ্ছে ততই ভাঙন বড় আকার ধারণ করেছে।

বিজেপিই যে তৃণমূলের ঘর ভাঙছে তা নিজের মুখেই বলেছেন তৃণমূল সুপ্রিমো মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। জনসভার মঞ্চ থেকে তিনি বলেন, বিজেপির পক্ষ থেকে ‌দলের বর্ষীয়ান নেতাদের ফোন করা হচ্ছে। দিল্লি থেকে ফোন করা হচ্ছে। দলের রাজ্য সভাপতি সুব্রত বক্সি এবং বীরভূমের জেলা সভাপতি অনুব্রত মণ্ডলকেও ফোন করা হয়েছিল। দিল্লি থেকে ফোন করে বৈঠক করতে চাইছে বিজেপি নেতারা।

২০১৪ সালের লোকসভা ভোটের পর থেকেই তৃণমূলে ভাঙন শুরু হয়। গত ৬–৭ বছরে তৃণমূল ত্যাগ করে বিজেপিতে যোগ দিয়েছেন মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের দীর্ঘদিনের সঙ্গীরা। সৌমিত্র খান, অনুপম হাজরা থেকে মিহির গোস্বামী। তাঁরা সবাই যোগ দিয়েছেন বিজেপিতে। এবার দিদির লড়াকু সৈনিক শুভেন্দুও বিজেপিতে যোগ দেওয়া স্রেফ সময়ের অপেক্ষা।