শীতে বাড়ছে খুশকি, পড়ছে চুল? ৫ পরামর্শ

64
শীতে
Social Share

শীতে ত্বক ও চুল শুষ্ক হয়ে পড়ে। এই শুষ্কতা থেকে বিভিন্ন সমস্যা হয়। এ সময় রাসায়নিক উপাদান ব্যবহার করলে চুলের আরও ক্ষতি হয়। শীতে ত্বক ও চুলের সমস্যা প্রতিরোধে আপনাকে অবশ্যই সঠিক যত্ন নিতে হবে।

 জীবনধারা ও স্বাস্থ্যবিষয়ক এক প্রতিবেদনে শীতে চুলের যত্নে কয়েকটি পরামর্শ দেওয়া হয়েছে। আসুন, আমরা পাঁচ পরামর্শ জেনে নিই—

ভালো করে চুল আঁচরান

শীতে চুলে একটু বেশি জট পাকে। আর আপনি যদি কোনও কিছুর তোয়াক্কা না করে চুল আঁচড়ান, শেষমেষ ক্ষতি আপনারই হবে। মানে চুল উঠবে, মাথার ত্বকের ক্ষতি হবে। তাই ধীরে চুল আঁচড়াতে হবে। একটু বড় দাঁতের চিরুনি ব্যবহার করা ভালো।

চুলে তেল দিন

শীতে ময়েশ্চারাইজার জরুরি। ভালো তেল দিয়ে মাথায় ম্যাসাজ করতে পারেন। নারকেল তেল ও অলিভ অয়েল দারুণ কাজ করে। আপনি এতে নিম পাতা, কারি পাতা ও আমলকি যুক্ত করতে পারে। আমলকির রসের সঙ্গে অ্যালোভেরার জেল মিশিয়ে মিশ্রণ তৈরি করে লাগাতে পারেন। দেখবেন দারুণ কাজ করবে।

গরম পানিতে গোসল এড়ান

শীতে গরম পানি দিয়ে গোলস বারণ করাটা খারাপ হবে। তবু আপনাকে তা করতেই হবে চুলের স্বার্থে। গরম পানি দিয়ে গোসল করলে চুল থেকে প্রাকৃতিক তেল ও ময়েশ্চার চলে যায়। তবে মাথার ত্বক শুষ্ক ও নির্জীব হয়ে পড়ে। অবশ্য হালকা বা কুসুম কুসুম গরম পানিতে গোসল করতে পারেন।

মাথায় টুপি বা স্কার্ফ পরতে পারেন

দূষণ ও ধুলোবালি থেকে দূরে থাকুন। কারণ, তা চুলকে রুক্ষ ও নির্জীব করে দিতে পারে। চুলের সুরক্ষায় আপনি মাথা ঢেকে রাখতে পারেন। ঘরের বাইরে গেলে পরতে পারেন টুপি বা স্কার্ফ।

স্বাস্থ্যকর খাবার খান

চুলের যত্নে প্রোটিন সমৃদ্ধ খাবার খান। স্বাস্থ্যকর চুল পেতে চাইলে পুষ্টিকর খাবার খেতে হবে। ভিটামিন সমৃদ্ধ খাবার খাদ্যতালিকায় রাখুন, যেমন ডিম, মিষ্টিকুমড়া, বেরি, গাজর, বিটমূল ইত্যাদি। মাংস ও ওমেগা থ্রি ফ্যাটি অ্যাসিড সমৃদ্ধ খাবার খান। এতে শরীর ও চুল, দুইই সুস্থ থাকবে।

চুলের যত্নে প্রোটিন সমৃদ্ধ খাবার খান। স্বাস্থ্যকর চুল পেতে চাইলে পুষ্টিকর খাবার খেতে হবে। ভিটামিন সমৃদ্ধ খাবার খাদ্যতালিকায় রাখুন, যেমন ডিম, মিষ্টিকুমড়া, বেরি, গাজর, বিটমূল ইত্যাদি। মাংস ও ওমেগা থ্রি ফ্যাটি অ্যাসিড সমৃদ্ধ খাবার খান। এতে শরীর ও চুল, দুইই সুস্থ থাকবে।