লাদাখ সীমান্তে রাস্তা তৈরির জন্য তোরজোড় শুরু করল ভারত, ১৫০০ শ্রমিক নিয়ে রওনা দিলো প্রথম ট্রেন

Social Share

নয়া দিল্লীঃ লাদাখে (Ladakh) চিন (China) সীমান্তের কাছে রাস্তা বানানোর জন্য ঝাড়খণ্ডের (Jharkhand) দুমকা জেলা থেকে ১ হাজার ৫০০ শ্রমিক নিয়ে রওনা দিলো ট্রেন। এই ট্রেনকে রাজ্যের মুখ্যমন্ত্রী হেমন্ত সোরেন (Hemant Soren) সবুজ পতাকা দেখিয়ে রওনা করেন। এই শ্রমিকরা বর্ডার রোড অর্গানাইজেশন (BRO) এর প্রোজেক্টে ভারত-চিন সীমান্তে কাজ করবে। ট্রেন রওনা দেওয়ার আগে ঝাড়খণ্ডের মুখ্যমন্ত্রী হেমন্ত সোরেন বলেন, আজ গোটা ভারত আর ঝাড়খণ্ডের জন্য এটি একটি অবিস্মরণীয় মুহূর্ত।

https://platform.twitter.com/widgets.js

হেমন সোরেন ট্যুইট করে লেখেন, ‘আজ গোটা ভারত আর ঝাড়খণ্ডের জন্য এটি একটি অবিস্মরণীয় মুহূর্ত। ইতিহাসে প্রথমবার শ্রমিক ভাই-বোন নিজেদের অধিকার, গোউরব আর সন্মানের সাথে দেশ নির্মাণের জন্য যাচ্ছে। আজ এর থেকে ভালো অবসর আর কি হতে পারে? এবার আমাদের শ্রমিক ভাই-বোনেরা সীমান্তে দেশ সেবার জন্য যুক্ত হবে। সবাইকে অনেক অনেক শুভকামনা।”

উনি আরও লেখেন, ‘বছর বছর ধরে ঠান্ডায় হারহিম করা লেহ এর মতো দুর্গম স্থানে কাজ করতে যাওয়া ঝাড়খণ্ডবাসীদের অনেক সমস্যার সন্মুখিন হতে হয়েছে। আজ দেশ সেবায় গর্ব আর সন্মানের সাথে যাওয়া আমাদের ঝাড়খণ্ডের ভাইদের প্রতিশ্রুতি দিচ্ছি যে, তাদের অধিকারের রক্ষার জন্য এই ভাই সবসময় থাকবে।”

শ্রমিকদের রওনা করার আগে BRO এর সাথে ঝাড়খণ্ড সরকার একটি চুক্তি করেছে। দুমকার শ্রম বিভাগ আর BRO এর মধ্যে এই চুক্তিতে স্বাক্ষর হয়েছে। ওই চুক্তি অনুযায়ী, শ্রমিকদের সমস্য সুবিধা দিতে হবে। তাদের শোষণ করা চলবে না আর তাদের কোনরকম অপব্যবহার করাও চলবে না।

এই অবসরে মুখ্যমন্ত্রী হেমন্ত সোরেন বলেন, কৃষকদের প্রতি সরকার সংবেদনশীল। আগামী দিনে কোন কৃষক, কোন শ্রমিক অনাহারে মরবে না। দরকার পড়লে আমি নিজের জীবন পর্যন্ত দিয়ে দেব। মুখ্যমন্ত্রী বলেন, সমস্ত শ্রমিকদের তাদের প্রাপ্য অধিকার পাওয়া উচিৎ। আর সেই অধিকারের কথা মাথায় রেখে আমরা BRO এর সাথে চুক্তি করেছি।