লাদাখ ইস্যুতে সরাসরি ভারতকে সমর্থন ব্রিটেনের, বেজায় ক্ষুব্ধ চিন

Social Share

লন্ডন: ভারত–চিন সীমান্তে সংঘাত নিয়ে ভারতের সমর্থনে কথা বলেন ব্রিটিশ রাষ্ট্রদূত ফিলিপ বার্টন। তার তীব্র প্রতিবাদ জানাল চিন। চিনের রাষ্ট্রদূত সান উইডং বার্টনের মন্তব্যের প্রতিক্রিয়ায় উইডং বলেছেন, এটি দ্বিপাক্ষিক বিষয় যেখানে কোনও তৃতীয় পক্ষের হস্তক্ষেপের প্রয়োজন নেই।

চিনের অতি আগ্রাসী মনোভাবের বিরুদ্ধে ব্রিটেন জানিয়েছে, হংকং ও ভারতের সীমান্তে চিনের আগ্রাসন গোটা পৃথিবীর কাছে চিনকে চ্যালেঞ্জের মুখে ফেলে দিয়েছে। বৃহস্পতিবার ব্রিটিশ রাষ্ট্রদূত সাংবাদিক সম্মেলনে বলেন,  চিন হংকংয়ের ওপর বিতর্কিত জাতীয় নিরাপত্তা আইন চাপিয়ে দিয়ে উচিৎ করেনি। পাশাপাশি, লাদাখ সীমান্ত নিয়েও চিনের বিরুদ্ধে তোপ দাগেন  ফিলিপ বার্টন।

ব্রিটিশ রাষ্ট্রদূত বলেন, চিনের অতি আগ্রাসী মনোভাবের জন্য গোটা বিশ্বে প্রবল সমালোচনার মুখে পড়েছে বেইজিং। তিনি জানান, চিন গোটা পৃথিবীর পক্ষে বিপজ্জনক হয়ে উঠছে। ব্রিটেন তার সহযোগী দেশগুলি চিনের আন্তর্জাতিক আইন লঙ্ঘনের বিষয়টি নিয়ে পদক্ষেপ গ্রহণ করবে বলেও হুঁশিয়ারি দেন বার্টন।

এরপরেই ব্রিটেনের রাষ্ট্রদূত ফিলিপ বার্টনকে পাল্টা চিনের রাষ্ট্রদূত সান ওয়েডং বলেন, তারা দ্বিপাক্ষিক ইস্যুগুলিতে তৃতীয় পক্ষের নাক গলানো পছন্দ করবে না। এদিকে, দক্ষিণ চিন সাগর নিয়েও ব্যাকফুটে অবস্থায় রয়েছে চিন। ব্রিটেনকে কার্যত হুঁশিয়ারি দিয়ে চিন জানিয়েছে, বাইরের শক্তি দক্ষিণ চিন সাগরের শান্তি বিঘ্নিত করছে, যা একেবারেই কাম্য নয়।