রাশিয়ায় দ্বিতীয় বিশ্বযুদ্ধে বিজয়ের ৭৫ বছর পূর্তিতে প্যারেডের আয়োজন

Social Share

রাশিয়ায় বুধবার দ্বিতীয় বিশ্বযুদ্ধে বিজয়ের ৭৫ বছর পূর্তি উপলক্ষে প্যারেডের আয়োজন করা হচ্ছে। রেড স্কয়ারে আয়োজিত এই প্যারেডে হাজার হাজার রুশ সৈন্য অংশ নিচ্ছে।
করোনা ভাইরাস সংক্রমনের আশংকা উপেক্ষা করেই প্রেসিডেন্ট ভ্লাদিমির পুতিন তার শাসন বিষয়ক গুরুত্বপূর্ণ ভোটের প্রাক্কালে এই সামরিক প্রদর্শনীর আয়োজন করছেন।
গত ৯ মে প্রদর্শনীটি অনুষ্ঠিত হওয়ার কথা থাকলেও করোনার কারণে ক্রেমলিন তা স্থগিত করেছিল। লকডাউন পদক্ষেপ শিথিল করার প্রেক্ষাপটে পুতিন দ্রুতই নতুন করে এই আয়োজনের তারিখ ঘোষণা করেন।
এদিকে বিশ্বে যুক্তরাষ্ট্র ও ব্রাজিলের পর করোনা সংক্রমণ সবচেয়ে বেশি রাশিয়ায়। দেশটিতে করোনায় মোট মৃত্যু রেকর্ড হয়েছে আট হাজার। আক্রান্ত ৫ লাখ ৮০ হাজার লোক। রাশিয়ায় পুতিনের ক্ষমতাকে পাকাপোক্ত করার লক্ষ্য নিয়ে আগামী সপ্তাহে সাংবিধানিক সংস্কার বিষয়ে জাতীয় ভোট অনুষ্ঠিত হবে। ধারণা করা হচ্ছে সংস্কারের পক্ষে ভোট গেলে পুতিন ২০৩৬ সাল পর্যন্ত ক্ষমতায় থাকতে পারবেন।
এদিকে জাতীয় এই নির্বাচনের এক সপ্তাহ আগে সামরিক প্রদর্শনীটি অনুষ্ঠিত হচ্ছে। প্রদর্শনীতে ১৩ সহ¯্রাধিক সৈন্য অংশ নিচ্ছে। তারা ২০টিরও বেশি যুদ্ধ আইটেম এই প্রদর্শনীতে উপস্থাপন করবে।
এদিকে পুতিনের এই প্যারেড আয়োজনের প্রেক্ষিতে অনেকেই সংক্রমণ বেড়ে যাওয়ার ঝুঁকির বিষয়ে আশংকা প্রকাশ করেছেন। কারণ মস্কোয় এখনও গণজমায়েত নিষিদ্ধ রয়েছে। এ কারণে মস্কোর মেয়র সার্গেই সবিয়ানিন ও ক্রেমলিন মুখপাত্র দিমিত্রি পেসকভ জনগণকে সরাসরি অংশ না নিয়ে এই প্যারেড টিভিতে দেখার অনুরোধ জানিয়েছেন।
এছাড়া রাশিয়ার অনেকগুলো শহর ভাইরাসের কারণে একই দিন এই প্যারেড আয়োজন করছে না। তবে স্ন্টে পিটার্সবার্গ ও ভলগোগ্রাডে প্যারেডটি আয়োজিত হচ্ছে।
এই আয়োজনে ফরাসী প্রেসিডেন্ট ইমানুয়েল ম্যাক্রো ও চীনা নেতা শি জিনপিংয়ের অংশ নেয়ার কথা থাকলেও তা পরে তারা বাতিল করেন। তবে বেলারুশ নেতা আলেকজান্ডার লুকাশেংকো ও চীনা প্রতিরক্ষা মন্ত্রী এতে অংশ নিচ্ছেন।
এদিকে বিরোধী পক্ষ প্যারেডের পরপরই নির্বাচনের দিন ঠিক করায় পুতিনের সমালোচনা করে তারা বলছেন, প্যারেডের পর পর নির্বাচন আয়োজন করে তিনি জনগণের দেশপ্রেমের চেতনাকে কাজে লাগাতে চাচ্ছেন।