রাজনীতিতে এলে ভালই করবেন সৌরভ, বললেন দেবশ্রী রায়

দেবশ্রী রায় এবং সৌরভ গঙ্গোপাধ্যায়।
Social Share

লকডাউন, কোয়রান্টিন পর্ব শেষ। পর্দায় আবার ‘দাদাগিরি আনলিমিটেড’ সিজন ৮। ফিরছেন সঞ্চালক সৌরভ গঙ্গোপাধ্যায়। চলতি সপ্তাহের শনি আর রবিবার বুকড স্পেশাল এপিসোডের জন্য। সেলিব্রেশন করতে ‘দাদা’ সেটে ফিরছেন ‘কলকাতার রসগোল্লা’ নিয়ে!

চ্যানেল সূত্রে খবর, চলতি সপ্তাহে সৌরভের সঙ্গে ‘দাদাগিরি’-তে দেখা যাবে তারকা-বিধায়ক দেবশ্রী রায়কে। থাকবেন মিঠু-সব্যসাচী চক্রবর্তী, রাজেশ শর্মাও।

বহু দিন পরে পর্দায় আবার দেবশ্রী। দর্শক অধীর অপেক্ষায়। অভিনেত্রী নিজে কতটা খুশি রিয়্যালিটি শোয়ে এসে? আনন্দবাজার ডিজিটালকে উত্তর দেবশ্রীর, ‘‘খেলা তো নিয়মমাফিক হলই। প্রচুর আড্ডাও দিলাম। এটাই ভীষণ আনন্দ দিয়েছে। লকডাউনের জন্য বহুদিন বহু জনের সঙ্গে দেখা নেই। এখানে এসে মিঠুদি, সব্যসাচী চক্রবর্তী, রাজেশদার সঙ্গে দেখা হল। মনটা ফুরফুরে হয়ে গেল।’’

লকডাউনে বিভিন্ন স্বেচ্ছাসেবী এবং নিজের সংস্থার সঙ্গে হাতে হাত মিলিয়ে অফিসপাড়ার অভুক্ত সারমেয়দের খাবারের ব্যবস্থা করেছেন তিনি। প্রচুর সময় কাটিয়েছেন পরিবারের সঙ্গে। কাজের চাপে যা সাধারণত করে উঠতে পারেন না।

আড্ডা প্রসঙ্গে দেবশ্রীর বক্তব্য, তাঁর নিজেরই হিসেব ছিল না মোট ক’টি ছবিতে অভিনয় করেছেন! সব্যসাচীদা হিসেব কষে জানিয়েছেন, কমপক্ষে ২০০টি ছবি অভিনেত্রীর ঝুলিতে। তার মধ্যে অনেকগুলোতেই তাঁরা একসঙ্গে কাজ করেছেন।

প্রথম সিজনের সৌরভের থেকে সিজন ৮-এর সৌরভ কতটা এগিয়ে? “শো পরিচালনার সময় সূক্ষ্ম রসবোধ, প্রতিযোগীদের লেগপুলিং আর আন্তরিকতা মিশিয়ে সঞ্চালনাতেও তিনিই ‘মহারাজ’!” সাফ কথা দেবশ্রীর।

অনেকটা কেবিসি-র অমিতাভ বচ্চনের স্টাইলে? ‘‘ঠিক বলেছেন’’, সায় ‘১৯ এপ্রিল’-এর মিঠুর। জানালেন, হয়তো মিল রয়েছে দু’জনের সঞ্চালনায়। কিন্তু ‘দাদা’ কখনওই অনুকরণ করেননি বিগ বি-কে।

আড্ডায় নাকি সৌরভ নিজেই কথায় কথায় বায়োপিকের প্রসঙ্গ এনে রাজেশ শর্মাকে বলেছেন, ‘‘ধোনির বেলায় তুমি ছিলে। আমার বায়োপিকেও থাকবে তো?’’ জানালেন অভিনেত্রী। সৌরভ তাঁর ভূমিকায় হৃতিক রোশনকে চাইলেও দেবশ্রীর মত, ফ্রেশ কাউকে নেওয়া উচিত। যে পরিশ্রম করে নিজেকে ‘সৌরভ’ বানিয়ে নিতে পারবেন। তিনি খুশি যে বাংলায় না হয়ে হিন্দিতে এই বায়োপিক হবে। বললেন, ‘‘সৌরভ আন্তর্জাতিক ব্যক্তিত্ব। তাঁর জীবন তাই বাংলায় সীমাবদ্ধ না রেখে ছড়িয়ে দেওয়া উচিত সারা দেশে। হিন্দিতে হলে সেটা হবে।’’ যদিও নিজের ভূমিকায় সৌরভ নিজে অভিনয় করুন, এটা চান না তিনি। যুক্তি, সৌরভ অভিনেতা নন। তাই তাঁকে এই দায়িত্ব না দেওয়াই বাঞ্ছনীয়। এবং প্রাক্তন অধিনায়কও যে এই পথে পা বাড়াবেন না, নিশ্চিত ‘দাদার কীর্তি’র ‘বিনি’।

এই মুহূর্তের জ্বলন্ত জল্পনা, ২০২১-এর রাজ্য রাজনীতিতে নাকি অভিষেক হতে পারে বাংলার মহারাজের। একজন বিধায়ক হিসেবে দেবশ্রী চাইবেন, রাজনীতির মাঠেও খেলুন সৌরভ? প্রশ্ন শুনেই নিমেষে রক্ষণাত্মক রাজনীতিবিদ, ‘‘এটা সম্পূর্ণ সৌরভের ব্যক্তিগত ব্যাপার। আমি এটুকু বলতে পারি, রাজনীতিতে এলেও ভালই করবেন তিনি।’’

কোন দলে দেখতে চান ‘দাদা’-কে? ফোনের ওপ্রান্তে হাসির শব্দ, ‘‘এখনও যা জল্পনা তা নিয়ে কিছু বলা উচিত?’’