রাইচ মিলের চুল্লি থেকে এনজিও কর্মীর লাশ উদ্ধার

78
Social Share
কাজল আর্য, স্টাফ রিপোর্টার: টাঙ্গাইলের কালিহাতীতে রাইচ মিলের চুল্লির জ্বলন্ত আগুনে পুড়ে মারা গেছেন সুরমা আক্তার (৩২) নামে এক নারী এনজিও কর্মী। বুধবার সন্ধ্যায় উপজেলার চাটিপাড়া এলাকায় এই ঘটনা  ঘটে। পরে পুলিশ নিহতের লাশ উদ্ধার করেছে।
নিহত নারী সুরমা আক্তার উপজেলা সদরের চাটিপাড়া গ্রামের মৃত বেলায়েত হোসেনের মেয়ে ও স্থানীয় এনজিও সেবালয়ের কর্মী।
তবে সুরমা আক্তার কি কারণে আগুনে পুড়ে মারা গেছেন তা জানাতে পারছেন না পরিবারের লোকজন। এরকম চুল্লিতে আত্মহত্যা করাও সম্ভব না বলে ধারণা করছেন স্থানীয়রা। ঘটনাটি রহস্যময়
নিহতের বড় বোন সুমনা আক্তার জানান, ইফতার পর রাইস মিলের পাশ থেকে লোকজনের কোলাহল শুনতে পাই। দৌঁড়ে গিয়ে দেখি চুল্লির ভিতরে একটা মানুষ তুসের আগুনে জ্বলছে। ফায়ার সার্ভিসে খবর দিলে তারা এসে আগুন নেভাতে নেভাতেই আমার বোনটি মারা যায়, পরে মৃত অবস্থায় লাশটি উদ্ধার করা হয়।
এদিকে ৭ মাস আগে সুরমা আক্তারের ডিভোর্স হয় কালিহাতী পৌর এলাকার সওদাগর পাড়ার আসাদ সওদাগরের সাথে।
থ্রী স্টার রাইস মিলের ভাড়ায় চালিত মালিক শ্রীদাম জানান, চুল্লিতে আগুনে পুড়ে যাওয়ার ঘটনা একজন শ্রমিক আমাকে জানিয়েছেন।
কালিহাতী ফায়ার সার্ভিস ও সিভিল ডিফেন্সের স্টেশন অফিসার মঞ্জুরুল ইসলাম জানান খবর পাওয়া মাত্রই আমরা ঘটনাস্থলে গিয়ে আধা ঘন্টার প্রচেষ্টায় আগুন নিয়ন্ত্রনে এনে পুড়ে যাওয়া লাশ উদ্ধার করি।
কালিহাতী থানার ওসি সওগাতুল আলম জানান, লাশ উদ্ধার করে ময়নাতদন্তের জন্য টাঙ্গাইল জেনারেল হাসপাতাল মর্গে পাঠানো হয়েছে । এ বিষয়ে এখন পর্যন্ত কেউ থানায় মামলা করে নি।