যে ১০টি খাবার বেশি খেলেও ওজন বাড়বে না

25
Social Share

বেশি খেলেই যে ওজন বাড়বে বিষয়টি একেবারে ঠিক না। কিন্তু সবা্ই এমনকি গুগলও বলবে বেশি খেলেই ওজন বাড়ে। কিন্তু জেনে অবাক হবেন বিষয়টি সঠিক না। এমন অনেক খাবার আছে যা যত বেশি খান না কেন  আপনার ওজন বাড়বে না।

অনেক সময় আমরা দেখা যায় আমরা ওজন কমানোর জন্য কোন বেলার খাবার না খেয়ে থাকি। এতে করে দেখা যায় পরের বেলায় ঠিকই পরিমাণের চেয়ে বেশি খেয়ে ফেলি। তবে এমন অনেক খাবার আছে যা বেশি খেলেও চিন্তা করার কোন প্রয়োজন নেই। চলুন জেনে নেওয়া যাক এমন ১০টি খাবার যা আপনি যেকোন চিন্তা ছাড়াই খেতে পারেন।

গাজর:

শীতকালীন সবজির মধ্যে গাজর অনেক বেশি উপকারি। গাজরে প্রচুর পরিমাণে ভিটামিন এ, বেটা ক্যারোটিন,লাইকোপিন,আলফা ক্যারোটিন এবং লুটেইন রয়েছে। গাজর বা গাজরের শরবত যেমন স্কিন ভালো রাখে তেমনি কোষ্ঠ্যকাঠিন্যের সমস্যাও দূর করে। গাজরের সাথে আদা ও বিটরুট মিশিয়ে খেলে আরো বেশি উপকার পাওয়া যায়।

পালং শাক:

পালং শাকে ভিটামন এ,সি,কে,বি-২, আয়রন,ম্যাগনেসিয়াম রয়েছে। পালং শাকে গুণের কথা এক কথায় বলা যাবে না। আপনার যদি পালং শাক শুধু খেতে পচ্ছন্দ না হয় তবে পালং পনির, পালং শাকের স্যুপ বানিয়ে খেতে পারেন।

মুগ ডাল:

মসুর ডাল শরীরের জন্য খুব উপকারী না হলে মুগ ডালের ক্ষেত্রে বিষয়টি এমন না। মুগ ডাল ফলিক এসিড সমৃদ্ধ। মুগ ডাল যেমন হজমে সহায়তা করে তেমনি মস্তিষ্ক ও মেরুদণ্ডের জন্য উপকারী। মুগ ডালের ফাইবার দীর্ঘ সময় আপনার পেট ভরা রাখতে সাহায্য করবে। আপনার সুবিধামত ভাতের সাথে খেতে পারেন মুগ ডাল।

শসা:

শসায় শতকরা ৯৬ ভাগ পানি রয়েছে। ওজন কমাতে সাহায্য করে শসা। সালাদ বানিয়ে,জুস করে বা এমনিতেও খেতে পারেন শসা।

বিশেষ আটা:

গ্লুটেন ফ্রি আটা ক্যালসিয়াম ও প্রোটিনের অন্যতম উৎস। স্বাস্থ্যের জন্য উপকারী আটা এবং মেটাবলিজম বাড়াতে সাহায্য করে এই আটা।

ওটস:

অর্গানিক ওটসে প্রচুর পরিমাণে ফাইবার আছে। চিকিৎসকদের মতে আপনি যতই ওটস খান না কেন আপনার ওজন বাড়বে না।

নারিকেল পানি:

নারিকেল পানি আপনার শরীরকে হাইড্রেট করতে সহায়তা করে। শরীরকে ভালো রাখে নারিকেল পানি। পেট ভালো রাখে, অ্যাসিডিটি কমায় এবং স্কিন ভালো রাখতে সাহায্য করে।

বাটারমিল্ক:

ক্ষুধা বোধ তৈরি করে যে হরমনগুলো তাকে দমিয়ে রাখতে সাহায্য করে বাটারমিল্ক। ওয়ার্কআউটের পরে বাটার মিল্ক অনেক উপকারে আসে।

কুমড়ার বীজ:

কুমড়ার বীজ ম্যাগনেসিয়ামের ভালো উৎস যা ঘুম ভালো রাখে সেই সাথে ব্লাড প্রেসার নিয়ন্ত্রণে রাখে।

মিষ্টি আলু:

আপনি ক্ষুধা লাগলে কোন চিন্তা ছাড়া মিষ্টি আলু খেতে পারেন। ভিটামিন এ এর অন্যতম উৎস মিষ্টি আলু যা স্কিনও ভালো রাখে।