ভারতের বিপক্ষে শেষ উইকেটে ম্যাচ বাঁচাল কিউইরা

61
ম্যাচ বাঁচাল
Social Share

কানপুর টেস্টের পঞ্চম দিনে শেষ বেলায় ভারতের হাত থেকে ম্যাচ বাঁচাল নিউজিল্যান্ড। এজাজ প্যাটেল এবং রাচিন রবীন্দ্রর জুটির সামনে ব্যর্থ হলেন রবিচন্দ্রন অশ্বিনরা। শেষ উইকেটে ম্যাচ বাঁচালেন তারা। অর্থাৎ কানপুর টেস্ট ম্যাচটি ড্র হয়েছে।

ভারতের জয়ের জন্য পঞ্চম দিনে দরকার ছিল ৯ উইকেট। প্রথম সেশনে একটিও উইকেট নিতে পারেননি রবিচন্দ্রন অশ্বিনরা। চিন্তা বাড়িয়ে দিয়েছিলেন ভারতীয় সমর্থকদের। কিন্তু দ্বিতীয় সেশনের শুরুতেই টম লাথাম এবং উইলিয়াম সামারভিলের জুটি ভেঙে দেন উমেশ যাদব। রাতপ্রহরী সামারভিলেকে ফিরিয়ে দেন তিনি। সেই সেশনে পড়ে তিনটি উইকেট।

চা বিরতিতে যাওয়ার সময় ১২৫ রানে ৪ উইকেট হারায় নিউজিল্যান্ড। শেষ সেশনে দরকার ছিল ৬টি উইকেট।

কেন উইলিয়ামসনের উইকেট নেন রবীন্দ্র জাডেজা। জয়ের আশা বাড়ে ভারতের। কিন্তু শেষ পর্যন্ত তা সম্ভব হয়নি। রবীন্দ্র জাদেজা শেষ ইনিংসে চার উইকেট নেন। অশ্বিন নেন ৩ উইকেট। একটি করে উইকেট নিয়েছেন উমেশ যাদব এবং অক্ষর প্যাটেল। শেষ উইকেটটি আর নিতে পারলেন না তারা।

কানপুর টেস্টে অভিষেক ম্যাচে শতরান এবং পরের ইনিংসে অর্ধশতরান করে নজর কাড়েন শ্রেয়াস আইয়ার। প্রথম ইনিংসে পাঁচ উইকেট নিয়েছিলেন অক্ষর প্যাটেল। তার ফলে ৪৯ রানের লিড পায় ভারত। দ্বিতীয় ইনিংসে ঋদ্ধিমান সাহার অপরাজিত ৬১ রানের গুরুত্বপূর্ণ ইনিংসে ভর করে নিউজিল্যান্ডকে ২৮৪ রানের লক্ষ্য দেয় ভারত। ম্যাচ বাঁচাল নিউজিল্যান্ড।

সেই রান শেষ দিনে তোলা প্রায় অসম্ভব ছিল নিউজিল্যান্ডের পক্ষে। চেষ্টাও করেননি উইলিয়ামসনরা। ক্রিজে টিকে থাকার চেষ্টা করছিলেন তারা। অশ্বিন, জাদেজাদের দাপটে একটা সময় জয়ের খুব কাছে চলে এসেছিল ভারত। কিন্তু শেষ পর্যন্ত উইকেটের সামনে দেওয়াল তুলে দেন এজাজ এবং রবীন্দ্র। ভারতের স্পিন আক্রমণের বিরুদ্ধে ব্যাট হাতে প্রতিরোধ গড়ে তোলেন তারা।

রবীন্দ্র ৯১ বলে ১৮ ও এজাজ ২৩ বলে ২ রানে অপরাজিত থাকেন।

দুই ইনিংসে যথাক্রমে ১০৫ ও ৬৫ রান করার সুবাদে ম্যাচসেরার পুরস্কার জিতেছেন ভারতের অভিষিক্ত ব্যাটার শ্রেয়াস আইয়ার।

সেই রান শেষ দিনে তোলা প্রায় অসম্ভব ছিল নিউজিল্যান্ডের পক্ষে। চেষ্টাও করেননি উইলিয়ামসনরা। ক্রিজে টিকে থাকার চেষ্টা করছিলেন তারা। অশ্বিন, জাদেজাদের দাপটে একটা সময় জয়ের খুব কাছে চলে এসেছিল ভারত। কিন্তু শেষ পর্যন্ত উইকেটের সামনে দেওয়াল তুলে দেন এজাজ এবং রবীন্দ্র। ভারতের স্পিন আক্রমণের বিরুদ্ধে ব্যাট হাতে প্রতিরোধ গড়ে তোলেন তারা।

রবীন্দ্র ৯১ বলে ১৮ ও এজাজ ২৩ বলে ২ রানে অপরাজিত থাকেন

দুই ইনিংসে যথাক্রমে ১০৫ ও ৬৫ রান করার সুবাদে ম্যাচসেরার পুরস্কার জিতেছেন ভারতের অভিষিক্ত ব্যাটার শ্রেয়াস আইয়ার।